,

শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় মঞ্জুর আহমেদকে চিরবিদায়

News

রাজবাড়ী : গভীর শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় রাজবাড়ী জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি, গোয়ালন্দ উপজেলা বিএনপি’র সাবেক সভাপতি, গোয়ালন্দ বাজার ব্যবসায়ী পরিষদের সভাপতি ও গোয়ালন্দ টেক্সটাইল মিলস লি. এর পরিচালক মঞ্জুর আহমেদ মঞ্জুকে (৬৮) চিরবিদায় দিয়েছেন হাজারো মানুষ।

শুক্রবার (২৬ জানুয়ারি) বেলা আড়াইটায় গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদ মাঠে নামাজে জানাজা শেষে রমজান মাতুব্বাপাড়া কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

এর আগে তার মরদেহ গোয়ালন্দ বাজার ব্যবসায়ী পরিষদ কার্যালয়ে নেয়া হলে সেখানে শেষ শ্রদ্ধা জানান ব্যবসায়ীবৃন্দ ও বিভিন্ন ব্যাক্তি। তার মৃত্যুতে গোয়ালন্দ বাজারে একদিনের শোক কর্মসূচী পালন করা হয়। কর্মসূচীর মধ্যে ছিল সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে কালো ব্যাচ ধারণ। একই কর্মসূচী পালন করে গোয়ালন্দ পৌরজামতলা ব্যবসায়ী পরিষদ।

মঞ্জুর আহমেদের নামাজে জানাজায় সাবেক মন্ত্রী বিএনপি নেতা চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ফকীর আব্দুল জব্বার, রাজবাড়ী জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট এম.এ খালেক, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হারুন-অর-রশিদ, সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট আসলাম মিয়া, গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবিএম নুরুল ইসলাম, গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম মাহবুবুর রাব্বানী, গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ সদস্য নুরুজ্জামান মিয়া, সাধারন সম্পাদক ও দৌলতদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম মণ্ডল, মরহুমের বড় ভাই নজির আহমেদ, জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক খোন্দকার নুরুল নেওয়াজ, জেলা বিএনপির ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক ও জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান লিখন, জেলা বিএনপির সদস্য ও যুক্তরাজ্য ছাত্রদলের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি এম.এ খালেদ পাভেলসহ দল-মত নির্বিশেষে বিভিন্ন শ্রেণীপেশার বিপুল সংখ্যক মানুষ অংশ নেন।

মঞ্জুর আহমেদের নামাজে জানাজার আগ মুহুর্তে উপস্থিত মুসল্লীদের সামনে বর্ষিয়ান এ রাজনীতিবীদের স্মরণে বক্তব্য দেন রাজবাড়ী জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট এম.এ খালেক।

বর্ষিয়ান রাজনীতিবীদ ও শিল্পপতি মঞ্জুর আহমেদ বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুর ১টার দিকে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান । তিনি রাজবাড়ী-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম নিজাম উদ্দিন আহমেদের ছেলে। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, তিন ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর