,

সর্বশেষ :
গোয়ালন্দে যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় যুবককে পিটিয়ে হত্যা রাজবাড়ীর কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী আমিন হুজুর এবার ইয়াবাসহ আটক রাজবাড়ীতে পুলিশের বাঁধায় ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল পন্ড নতুন সেনাপ্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল আজিজ আহমেদের বর্ণিল ক্যারিয়ার বীর মুক্তিযোদ্ধা ও গুণীজন সংবর্ধনা : আয়োজনে আনিসুর রহমান (আন্জু) স্মৃতি যুব সংঘ পাটুরিয়ায় ভোগান্তি, দৌলতদিয়ায় স্বস্তি রাজবাড়ীতে ভিজিএফের চাল চুরি করে ফেঁসে গেলেন ইউপি চেয়ারম্যান রাজবাড়ীতে অসহায় মানুষের মধ্যে ঈদবস্ত্র বিতরণ দৌলতদিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল রাজবাড়ীতে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে অস্ত্রসহ ২ ডাকাত আটক

রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কে কোটি টাকার সরকারি গাছ হরিলুট

News

রাজবাড়ী : রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের বাগমারা পল্লী বিদ্যুৎ অফিস হতে আফড়া পর্যন্ত টেন্ডার ছাড়াই কোটি টাকা মূল্যের শতাধিক গাছ কেটে নিয়ে গেছে বৃক্ষ দস্যুরা। প্রায় একমাস যাবৎ সময় ধরে প্রকাশ্য দিবালোকে এ গাছ কাটার মহোৎসব চললেও রহস্যজনকভাবে সড়ক বিভাগ নীরব ভূমিকা পালন করে।

রাজবাড়ী সড়ক ও জনপথ বিভাগের নাকের ডগা থেকে বৃক্ষ দস্যুরা কোটি টাকা মূল্যের কয়েক শত গাছ কেটে নিলেও সড়ক বিভাগের লোকজন গত ১৮ই ফেব্রুয়ারি দুপুরে মাত্র তিনটি গাছের গুড়ি উদ্ধার করে।

হাস্যকর এ অভিযোগে ওই দিন (গত ১৮ই ফেব্রুয়ারি) রাজবাড়ী থানায় মামলা করেছেন সড়ক বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. আব্দুর রশিদ। তিনি ২০ লক্ষ টাকা মূল্যের ১০০টি বড় মাপের গাছ কাটার বিষয় উল্লেখ করেছেন। তবে এ মামলাটি সড়ক বিভাগের সংশ্লিষ্টদের দায় এড়ানো মামলা বলে জনশ্রুতি রয়েছে। রাজবাড়ী থানার মামলা নং-২৩, ধারাঃ ৩৭৯ পেনাল কোর্ড। মামলায় অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, আহলাদিপুর-রাজবাড়ী-পাংশা-কুমারখালী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের দুই পাশে বিভিন্ন অংশের গাছ বিক্রির জন্য টেন্ডার দেয়া হলেও রাজবাড়ী সড়ক বিভাগের অধিক্ষেত্র সীমানার মধ্যে চরবাগমারা থেকে আফড়া বাজার পর্যন্ত টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়নি। গত ১৮ই ফেব্রুয়ারি দুপুর ১২টার দিকে রাজবাড়ী সড়ক বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. আব্দুর রশিদ আহলাদিপুর এলাকায় সড়কের মেরামত কাজের তদারকি করার সময় খবর পান কিছু লোকজন টেন্ডার অসমাপ্ত অংশের গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে। খবর পেয়ে তিনি বিষয়টি সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ জহিরুল ইসলামকে অবগত করেন। এরপর নির্বাহী প্রকৌশলীর নির্দেশে তিনিসহ অন্যান্যরা ওই সড়কের ১৭ ও ১৯তম অংশে উপস্থিত হয়ে গাছ কেটে নেয়ার চিহৃ দেখতে পান। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে তিনটি গাছের গুলি উদ্ধার করেন তারা।

জানা যায়, প্রায় দুই মাস ধরে আহলাদিপুর থেকে আফড়া পর্যন্ত সড়ক প্রশস্ত করার নাম করে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের দু’পাশের গাছ কাটার উৎসব শুরু হয়। প্রথমে টেন্ডারের মাধ্যমে গাছ কাটা হচ্ছে বলে শোনা গেলেও পরবর্তীতে তা নিয়ে নানা গুঞ্জন শুরু হয়। কোথায় বা কবে টেন্ডার হয়েছে তাও অনেকেরই বোধগম্য নয়। আবার টেন্ডার হলেও লক্ষাধিক টাকা মূল্যের গাছও পানির দামে বিক্রি হয়েছে বলে অভিযোগ উঠে। কারো কিছু বোঝার আগেই রাস্তার দুই পাশে থাকা কোটি কোটি টাকা মূল্যের গাছ কেটে নেয়া হয়।
জনশ্রুতি আছে রাজবাড়ী সড়ক ও জনপথ বিভাগের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের যোগসাজসে একটি চক্র প্রকাশ্যে দিবালোকে কোটি টাকা মূল্যের বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কর্তন করে নিয়ে যায়।

গত ১৮ই ফেব্রুয়ারি জেলা উন্নয়ন ও সমন্বয় কমিটির সভায় সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ জহিরুল ইসলামের উপস্থিতিতে রাস্তার সরকারি গাছ কাটার মাধ্যমে লোপাটের বিষয়ে কালুখালী উপজেলা চেয়ারম্যান কাজী সাইফুল ইসলাম উত্থাপন করেন। এসময় জেলা প্রশাসক মো. শওকত আলী সভায় সরকারি গাছ লোপাটের ঘটনায় কোন মামলা না করায় অসন্তোষ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে সড়ক ও জনপথ বিভাগের পক্ষ থেকে দায়সারা ভাবে মাত্র ২০লাখ টাকার গাছ চুরির অভিযোগে উক্ত মামলা দায়ের করা হয়।

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর