,

সর্বশেষ :
‘এআরএস’ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে পছন্দের খাবার খেল ১০০ শিক্ষার্থী কলাগাছের স্মৃতির মিনারে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের শ্রদ্ধাঞ্জলি শহিদদের শ্রদ্ধা জানাতে কলাগাছের স্মৃতির মিনার রাজবাড়ীতে বই মেলা শুরু রাজবাড়ীতে মেয়েকে ধর্ষণের দায়ে বাবার যাবজ্জীবন উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে ট্রাষ্টি বোর্ডকে আরও ৮ লাখ টাকা দিলেন ডা. আবুল হোসেন বালিয়াকান্দিতে শিশু ছাত্রীদের ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়নের অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার রাজবাড়ীতে ১৫ কেজি গাঁজাসহ স্বামী-স্ত্রী আটক রাজবাড়ীতে কলেজছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে রাজমিস্ত্রী আটক এক যুগ ধরে চিকিৎসাসেবার নামে প্রতারণা করে আসছেন রাজবাড়ীর পচা কর্মকার!

রাজবাড়ীতে পরিবেশবান্ধব আধুনিক মেশিনে ইট উৎপাদন

News

রাজবাড়ী : রাজবাড়ীতে কাঠ ও কয়লা না পুড়িয়ে জার্মান ও চাইনিজ টানেল কিলন প্রযুক্তিতে আধুনিক স্বয়ংক্রিয় মেশিনের সাহায্যে ইট উৎপাদন শুরু করেছে মণ্ডল সিরামিক ব্রিকস ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। ফলে দূষণের কবল থেকে রক্ষা পাচ্ছে পরিবেশ। ইতোমধ্যেই এই উন্নতমানের ইট সুলভ মূল্যে বিক্রি শুরু হয়েছে।

জেলা সদরের দাদশী ইউনিয়নের আগমারাই গ্রামে রেললাইনের পাশেই গড়ে উঠেছে শতভাগ পরিবেশবান্ধব এই ইট ফ্যাক্টরি। ফ্যাক্টারিতে রয়েছে কয়েকজন দেশী বিদেশী প্রকৌশলী। কাঠ ও কয়লা পুড়িয়ে পরিবেশ দূষণের পরিবর্তে পরিবেশবান্ধব এই ফ্যাক্টারি গড়ে তুলেছেন রাজবাড়ীর দুই কৃতি সন্তান (দুই সহোদর) ইঞ্জিনিয়ার মাহাবুব মণ্ডল ও ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল কুদ্দুস মণ্ডল।

ফ্যাক্টারির উৎপাদন কাজে নিয়োজিত প্রকৌশলী শহিদুল ইসলাম বলেন, ফ্যাক্টারিতে সমস্ত কাজই হয় ইলেক্টনিক ট্রলির মাধ্যমে। ইট উৎপাদনের সর্ব প্রথম প্রক্রিয়ায় মাটি ক্রাশিং মেশিনে প্রবেশ করানো হয়। এরপর সেই মাটি মলটিং মেশিনে মিক্সার করা হয়। এই মিক্সার এক্সটুডার মেশিনে প্রবেশ করা হলে তৈরি হয় মাটির কেক। এরপর এই মাটির কেক চলে যায় কাটার মেশিনে। এই কাটার মেশিনের মাধ্যমেই তৈরি হয় ইট। এরপর এই ইট ড্রায়ার মেশিনের ঢুকিয়ে শুকানো হয়। আর এই শুকানো ইট ট্রলির মাধ্যমে চলে যায় টানেল কিলনে। সেখান থেকেই ইট পোড়ানের পর বেরিয়ে আসে গুণগত মানসম্পন্ন ইট।

তিনি আরও বলেন, নরমাল পদ্ধতিতে দেশে যে ইটভাটা আছে সেখানে তাপমাত্রা মাপার কোন যন্ত্র নেই। ভাটা শ্রমিকরা আন্দাজের উপর তাপমাত্রা নির্ধারণ করে ইট তৈরি করে থাকেন। ফলে সেই ইটের গুণগত মান অনেকটাই দূর্বল থাকে। কিন্তু আমাদের এখানে তাপমাত্রা মাপার জন্য রয়েছে থার্মা ক্যাবেল। এই থার্মা ক্যাবেলের মাধ্যমেই সঠিক তাপমাত্রা নির্ধারণ করে আমরা ইট তৈরি করে থাকি। যার ফলে বাজারে প্রচলিত পদ্ধতির ইটের চেয়ে আমাদের এই ইটের মান অনেক উন্নত। এছাড়াও সাধারণ ইটের মাঝখানে লোগো দেয়ার কারণে বেশকিছু অংশ জুড়ে গর্ত থাকে। সেই ইট দিয়ে বাড়িঘর তৈরি করতে অতিরিক্ত সিমেন্ট ও বালু লাগে। কিন্তু আমাদের প্রযুক্তির এই ইট চারপাশেই সমান। সে কারণে বাসা বাড়িসহ যে কোনো ইমারত নির্মাণে ব্যয় অনেক কম হবে। সেই সঙ্গে এই ইট উৎপাদনে দূষণের কবল থেকে রক্ষা পাবে পরিবেশ।

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর