,

সর্বশেষ :
রাজবাড়ীর জরিনা বেগমের চোখের অপারেশনের জন্য সাহায্যের আবেদন মেয়েকে দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে বিক্রির সময় ধরা পড়লো বাবা! বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে শিশুদের সঙ্গে কেক কাটলেন রাজবাড়ীর এসপি রাজবাড়ী সদরে জনসমর্থনে এগিয়ে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী ভিপি পিয়াল ৮ মাসেও গ্রেফতার হয়নি কলেজছাত্র রুমানের খুনিরা! ‘সচিব পরিচয়ে ফোন নম্বর সংগ্রহ, সর্বহারা পরিচয়ে চাঁদা দাবি’ রাজবাড়ীতে ৪ টি আগ্নেয়াস্ত্রসহ ২ চরমপন্থী নেতা গ্রেফতার রাজবাড়ীর গোয়ালন্দমোড়ে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত রাজবাড়ীতে ইয়াবাসহ ৫ মাদক ব্যবসায়ী আটক রাজবাড়ীতে ১২% মূল্য ছাড়ে আইপিএস বিক্রি করছে ‘রানা ইলেকট্রনিক্স সার্ভিসিং সেন্টার’

প্রত্যেকটি মানুষের ঘরে শান্তি পৌঁছে দেওয়া হবে : রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার

News

রাজবাড়ী : রাজবাড়ী জেলার প্রত্যেকটি মানুষের ঘরে শান্তি পৌঁছে দেওয়া হবে বলে মন্তব্য করেছেন জেলা পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলি।

রাজবাড়ী সদর উপজেলার কুঠি পাঁচুরিয়া গ্রামে ডিবি পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ চরমপন্থী নেতা মোহাম্মদ আলী শেখ নিহত হওয়ার আনন্দে শুক্রবার (০৯ নভেম্বর) বিকেলে স্থানীয় বাজারে এক সমাবেশের আয়োজন করেন এলাকাবাসী।

‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে ওই সমাবেশে যোগ দিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলি এ মন্তব্য করেন।

পুলিশ সুপার বলেন, আমাদের দেশের মানুষ যে শান্তিতে থাকতে চায় তার প্রমাণ আজকের এই সমাবেশ। ২-১ জনের জন্যে যে মানুষের জীবনে কতোবড় বিপর্যয় নেমে আসে তা আপনারা পাঁচুরিয়া ইউনিয়নের মানুষ দেখেছেন। এখানে চরমপন্থী সন্ত্রাসীদের দ্বারা যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, যে পরিবারের শিশুটি আজ পিতৃহারা হয়েছে তার পিতাকে ফিরিয়ে দেওয়ার সামর্থ্য আমাদের নেই। কিন্তু, তাদের বিচার করার সামর্থ্য আল্লাহ্ পাক আমাদের দিয়েছেন। আর সে কারণে আমি আমার রাজবাড়ী পুলিশ প্রশাসনের প্রত্যেকটি সদস্যকে নিয়ে প্রত্যেকটি মুহুর্তে চিন্তা করি যে, রাজবাড়ীকে কবে একটি সন্ত্রাসমুক্ত জেলা হিসেবে আপনাদের কাছে উপহার দিতে পারবো।

তিনি বলেন, আমি রাজবাড়ীতে এসেছি ৮ মাস পেরিয়েছে। এই ৮ মাসে সন্ত্রাস দমন, মাদক নিয়ন্ত্রণ, ইভটিজিং এবং নারী ও শিশু নির্যাতনের বিরুদ্ধে আমার অবস্থান রয়েছে অত্যন্ত কঠোর। এখানে ক্ষমা করার কোনো সুযোগ ও উপায় আমাদের নেই। রাজবাড়ীতে চরমপন্থী গ্রুপের একটি প্রভাব রয়েছে। তারা জেলার বিভিন্ন এলাকায় ভয়ংকর ভয়ংকর সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছে। আমরা শুধু তথ্য চাই। আমাদের সাহসের অভাব নেই, আমাদের নির্দেশনারও অভাব নেই। আমাদের বর্তমান সরকার দেশকে সন্ত্রাসমুক্ত করার জন্য সব ধরণের সুবিধা পুলিশকে দিয়েছে। রাজবাড়ীতে যে সন্ত্রাসীরা এখনো পর্যন্ত বিভিন্ন জায়গায় লুকিয়ে আছে কিংবা প্রকাশ্যে আছে, আমরা চাই তাদেরকে আইনের হাতে সোপর্দ করতে। রাজবাড়ীবাসী চায় সন্ত্রাস নির্মূল হোক। এই সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আমাদের যুদ্ধ থাকবে। আর আমাদের যুদ্ধের সৈনিক হবেন রাজবাড়ীবাসী।

সমাবেশে পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলির স্বামী সাজ্জাদ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ রাকিব খান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) রেজাউল করিম, সহকারী পুলিশ সুপার লাবিব আব্দুল্লাহ, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার, জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ওসি মো. কামাল হোসেন ভুইয়া, পরিদর্শক মো. জিয়ারুল ইসলাম, পাঁচুরিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কাজী আলমগীর হোসেনসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশের শুরুতেই ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত চরমপন্থী নেতা মোহাম্মদ আলী ও তার বাহিনীর সদস্যদের দ্বারা নির্যাতনের শিকার ও নিহত হওয়া পরিবারের সদস্যরা পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলির গলায় ফুলের মালা পরিয়ে সম্মান জানান। এসময় ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যদের পরম মমতায় কাছে টেনে নেন পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলি।

রাজবাড়ী নিউজ২৪.কম/ আশিক

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর