,

সর্বশেষ :
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আইন ছাত্র ফোরামের কমিটি গঠন রাজবাড়ী ডিবি’র ওসি হিসেবে পুনরায় যোগদান করলেন কামাল ‘দয়াকরে আমাকে বাঁচাতে সহযোগীতা করুন, সারাজীবন দোয়া করবো’ পুত্রবধূর সঙ্গে ঝগড়া করে ফেরি থেকে ঝাঁপ দিলেন শ্বশুর রাজবাড়ীর খানখানাপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় যুবক নিহত সামাজিক অপরাধ বন্ধে গণপ্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে: সাংবাদিক মিরাজ গাজী (ভিডিও) রাজবাড়ীতে স্কুলছাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা মামলায় গ্রেফতার ২ এবার রাজবাড়ীতে স্কুলছাত্রীকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা পাংশার হাবাসপুরে ‘জাগো সমাজকল্যাণ সংগঠন’-এর সদস্য সম্মেলন অনুষ্ঠিত আজীবন সম্মাননা পুরস্কার পেলেন নুরুল ইসলাম শান্ত স্যার এবং এবারও “আনিসুর রহমান আন্জু স্মৃতি সংঘ” আয়োজিত বর্ণিল “ঈদ আনন্দ উৎসব”

সুষ্ঠু নির্বাচন হলে রাজবাড়ী-১ আসন পুনরুদ্ধার করতে সক্ষম হবো : অ্যাড. খালেক

News

রাজবাড়ী : রাজবাড়ী জেলা বিএনপির অন্যতম সহ-সভাপতি ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট এম.এ খালেক বলেছেন, বিগত পাঁচ বছরে দলীয় কর্মকাণ্ডে অংশ নেননি এমনকি বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতেও কোন আন্দোলন সংগ্রাম করেননি; রাজবাড়ীতে এমন ব্যক্তিও এখন বিএনপির মনোনয়নের জন্য ঘোরাঘুরি করছেন। এমন ব্যক্তিকে দলীয় মনোনয়ন না দেয়ার জন্য আমরা কেন্দ্রে জানাবো। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে রাজবাড়ী-১ আসনটি আমরা পুনরুদ্ধার করতে সক্ষম হবো।

সোমবার (১২ নভেম্বর) সন্ধ্যায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে রাজবাড়ী জেলা বিএনপির আয়োজনে খানখানাপুর এলাকার জজ বাড়িতে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে অ্যাডভোকেট এম.এ খালেক এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমি এবং জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাডভাকেট আসলাম মিয়াসহ দলের ত্যাগী নেতাকর্মীরা এই পাঁচ বছরে কেন্দ্র ঘোষিত সকল প্রোগ্রাম সফল করেছি। আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া মিথ্যা মামলায় কারাগারে আছেন। তার মুক্তির দাবিতে আন্দোলন সংগ্রাম করেছি। কিন্তু রাজবাড়ী জেলা বিএনপির সভাপতি আলী নেওয়াজ মাহমুদ খৈয়ম দলীয় কোন প্রোগ্রাম করেননি এবং অংশও নেননি। তিনি যখন এমপি ছিলেন তখন বিএনপির কোন নেতাকর্মী তার কাছ থেকে সুযোগ-সুবিধা পাননি। সুযোগ-সুবিধা পেয়েছেন ওয়ার্কার্স পার্টির লোকজন। আমার এবং জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট আসলাম মিয়ার মধ্যে কোন দ্বন্দ নেই। আমি রাজবাড়ী-১ আসনে বিএনপির মনোনয়নের আবেদন ফরম কিনবো। অ্যাডভোকেট আসলামও কিনবেন। আমাদের মধ্যে দলীয় মনোনয়ন যেই পাক আমরা তার পক্ষে কাজ করবো। মানুষ ধানের শীষে ভোট দেওয়ার জন্য মুখিয়ে আছে। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে রাজবাড়ী-১ আসনটি আমরা পুনরুদ্ধার করতে সক্ষম হবো ইন শা আল্লাহ্।

রাজবাড়ী-১ আসনে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট আসলাম মিয়ার সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র মো. তোফাজ্জেল হোসেন মিয়া, যুগ্ম-সম্পাদক গোলাম কাশেম, সাংগঠনিক সম্পাদক রইচ উদ্দিন ডিউক, দপ্তর সম্পাদক খন্দকার নুরুল নেওয়াজ,  সহ-কোষাধ্যক্ষ আহসান হাবীব শাহিন, ঋণ ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক মাসুদুর রহমান লাল, সহ তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক জিয়াউল হাসান আরিফ, জেলা বিএনপির সদস্য আব্দুর রব, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান লিখন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক রুবেল মাহমুদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা মনিরুল ইসলাম মনির, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক এম.এ খালেদ পাভেল, ছাত্রদল নেতা নাকিব আহসান নূর, ফরিদুর রহমান ফরিদসহ জেলা ও গোয়ালন্দ উপজেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ বক্তব্য দেন।

মতবিনিময় সভায় জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট আসলাম মিয়া বলেন, দলের মধ্যে বিভাজন তৈরী করে রেখেছেন আলী নেওয়াজ মাহমুদ খৈয়ম। তিনি ওয়ার্কার্স পার্টি করতেন। ওয়ার্কার্স পাটি করে তিনি ভুল করেছেন বলে বিএনপিতে এসেছিলেন। বিএনপিতে আসার পর তিনি পাঁচ বছর এমপি ছিলেন। আবার ১/১১ এর সময় বিএনপির দুঃসময়ে তিনি চলে গিয়েছিলেন সংস্কারপন্থী দলে। তিনি আবার ফিরে এসেছেন বিএনপিতে। আমার এবং অ্যাডভোকেট খালেক ভাইসহ বিএনপির ত্যাগী সকল নেতাকর্মীদের মধ্যে ঐক্য রয়েছে। জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হারুন-উর-রশীদও নিজের ভুল বুঝতে পেরে আমাদের মাঝে ফিরে এসেছেন। আমাদের মধ্যে কাউকে যদি বিএনপির মনোনয়ন দেওয়া হয় তাহলে রাজবাড়ীতে বিএনপি বিপুল ভোটে জয়লাভ করবে।

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর