,

নির্বাচনে বিজয়ী হলে দারিদ্র বিমোচনসহ রাজবাড়ীতে প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় করতে চান অ্যাড. আসলাম মিয়া

News

রাজবাড়ী : নির্বাচনে বিজয়ী হতে পারলে রাজবাড়ীতে শিল্পায়ন, দারিদ্র বিমোচন, নদী ভাঙা মানুষের পুনর্বাসন ও ভালোমানের প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় করতে চান প্রথমবারের মতো সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়া বিএনপির প্রার্থী অ্যাডভোকেট আসলাম মিয়া।

গত ২৮ নভেম্বর বিকেলে রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মো. শওকত আলীর কাছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার পর সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি একথা বলেন।

অ্যাডভোকেট আসলাম মিয়া বলেন, নির্বাচনী কৌশল ও আন্দোলনের অংশ হিসেবে নেতৃবৃন্দ রাজবাড়ী-১আসনে আমাদের দু’জনকে মনোনয়ন দিয়েছেন। আগামী ৭ ডিসেম্বরের মধ্যে যে কাউকে প্রতীক বরাদ্দ দিবেন। হয় আমাকে দিবেন। না হয় আলী নেওয়াজ মাহমুদ খৈয়মকে দিবেন। দল যাকে দিবে আমরা সেই সিদ্ধান্ত মেনে নেবো। আপনারা জানেন যে এই নির্বাচনটা আমাদের আন্দোলনের অংশ। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা আমাদের উদ্দ্যেশ্য। আমাদের উদ্দ্যেশ্য গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার করা। আমাদের উদ্দ্যেশ্য হলো আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করা এবং আমাদের দেশ নায়ক দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনা। কাজেই আমাদের সেন্ট্রাল বিএনপি যাকেই প্রতীক দিবেন আমরা তার পক্ষে নির্বাচন করে ধানের শীষকে বিজয়ী করে এই আসনটিকে আওয়ামী লীগের হাত থেকে উদ্ধার করবো।

এ সময় জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট এম.এ খালেক, সহ-সভাপতি মো. তোফাজ্জেল হোসেন মিয়া, আব্দুস সালাম, সাধারণ সম্পাদক ও রাজবাড়ী-২ আসনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী হারুন-অর-রশিদ, যুগ্ম-সম্পাদক গোলাম কাশেম, দপ্তর সম্পাদক খন্দকার নুরুল নেওয়াজ, সহ-দপ্তর সম্পাদক খন্দকার মাহফুজুর রহমান, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান লিখন, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম পিন্টু, পাংশা উপজেলা বিএনপির সভাপতি চাঁদ আলী খান, সহ-সভাপতি শাহ মো. রফিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক সুরুজ মুন্সী, পাংশা পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বাহ্রাম সরদার, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক এম.এ খালেদ পাভেল, সহ-সভাপতি মেহেদী হাসান তোতা, যুগ্ম সম্পাদক শামীম আহসান, ওমর ফারুক, শেখ মো. নিজাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর