,

সর্বশেষ :
খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রেখেছে ‘মানবিক রাজবাড়ী’ রাজবাড়ীতে সরকারি নির্দেশনা না মানায় ৩ দোকানিকে জরিমানা খানখানাপুরকে করোনামুক্ত রাখতে নিরলস পরিশ্রম করছেন বশির ও ফরহাদ রাজবাড়ীতে অসহায় মানুষের মধ্যে খিচুরি বিতরণ পাংশায় সেই যুবকের শরীরে করোনা পাওয়া যায়নি রাজবাড়ীতে আরও কঠোর হচ্ছে প্রশাসন রাতের আধাঁরে দরিদ্রদের ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিলো ‘মানবিক রাজবাড়ী’ রাতের আধাঁরে দরিদ্রদের ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিলেন ‘ঢাকাস্থ খানখানাপুর সমিতি’র সদস্যরা ঢাকা থেকে পালানো করোনায় আক্রান্ত তরুণীকে পাওয়া গেল রাজবাড়ীতে বসন্তপুরে মাছরাঙা ব্যবসায়ী সমিতির উদ্যোগে হতদরিদ্রদের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

রাজবাড়ীর বসন্তপুরে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টা

News

রাজবাড়ী : রাজবাড়ী সদর উপজেলার বসন্তপুর ইউনিয়নের কোলা গ্রামে সাত বছর বয়সী এক শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে বাবু মন্ডল (৬০) নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) সকালে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় শুক্রবার (২০ মার্চ) সকালে শিশুটির মা বাদী হয়ে রাজবাড়ী সদর থানায় একটি এজাহার দায়ের করলেও রোববার (২২ মার্চ) সন্ধ্যায় এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলাটি রেকর্ড হয়নি।

লম্পট বাবু মন্ডল বসন্তপুর ইউনিয়নের কোলা গ্রামের মৃত বিষু মন্ডলের ছেলে। নির্যাতনের শিকার শিশুটি স্থানীয় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণীর ছাত্রী।

শিশুটির পরিবার বলছেন, বসন্তপুর ইউনিয়ন পরিষদের এক গ্রাম পুলিশ ও স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী যোগসাজস করে ঘটনাটি স্থানীয়ভাবে মিমাংসা করে ধামাচাঁপা দেওয়ার চেষ্টা করছে।

শিশুটি জানায়, ‘বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) সকালে সে ঘুম থেকে উঠে দেখে তার মা রান্না করছে। এসময় তাদের প্রতিবেশী বাবু মন্ডল তাকে ইশারা করে কাছে ডেকে কোলে করে বাবুর ঘরে নিয়ে যায়। এরপর ঘরের দরজা বন্ধ করে বাবু মন্ডল শিশুটির প্যান্ট খুলে উলঙ্গ করে খারাপ কিছু করতে যায়। শিশুটি চিৎকার করতে চাইলে বাবু তার মুখ চেপে ধরে মারতে যায়। তখন শিশুটির মা তাকে ডাকাডাকি করলে বাবু মন্ডল তার মুখ চেপে ধরে বলে- তুই চিৎকার করলে তোকে মেরে ফেলবো।’

শিশুটির মা বলেন, ‘বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে আমি রান্না করার সময় আমার মেয়ে ঘুম থেকে ওঠে। এর কিছুক্ষণ পর আমি তাকে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি ও ডাকাডাকি করতে করতে প্রতিবেশী বাবু মন্ডলের বাড়ীতে যাই। সেখানে গিয়ে দেখি বাবু মন্ডলের ঘরের দরজা ভিতর থেকে বন্ধ করা। আমি অনেক্ষন ডাকাডাকি করলেও ভিতর থেকে কেউ দরজা না খোলায় আমার সন্দেহ হয়। তখন আমি আমার মেয়ের চাচীদের ডাক দিয়ে নিয়ে সেখানে গেলে বাবু মন্ডল দরজা খুলে আমার মেয়েকে নিয়ে বের হয়ে এসে আমার পায়ে ধরে মাফ চায়। সেসময় আমার মেয়ে ভয়ে অনেক কান্নাকাটি করছিলো এবং তার যৌনাঙ্গ ফোলা ছিলো। বাবু মন্ডল আমার মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টা করেছে। আমি সময়মতো বিষয়টি বুঝতে না পারলে হয়তো আমার মেয়ের অঘটন ঘটে যেত।’

তিনি আরও বলেন, ‘তিন মাস আগেও বাবু মন্ডল আমার মেয়েকে নিয়ে এমন কাজ করতে চেয়েছিল। তখনও আমি তাকে হাতেনাতে ধরার পর সে ও তার স্ত্রী আমার পায়ে ধরে মাফ চায়। আমিও লোক লজ্জার ভয়ে ঘটনাটি তখন কাউকে জানাইনি। তবে এবার আমি এই ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই। আমি বাদী হয়ে শুক্রবার (২০ মার্চ) সকালে রাজবাড়ী সদর থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছি। তবে এখনো পর্যন্ত পুলিশ এখানে আসেনি।’

শিশুটির বাবা বলেন, ‘ঘটনাটি নিয়ে আমরা থানায় এজাহার দায়ের করেছি। আমরা বাবু মন্ডলের বিচার চাই। তবে এলাকার কিছু প্রভাবশালী লোক আমাদের মামলা করতে নিষেধ করছে। তারা আমাদের ঘটনাটি স্থানীয়ভাবে মিমাংসা করে দেওয়ার কথা বলে ধামাচাঁপা দিতে বলছেন।’

শিশুটির এক চাচা বলেন, ‘বসন্তপুর ইউনিয়ন পরিষদের এক গ্রাম পুলিশ এবং স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী আমাকে ডেকে নিয়ে বলেছে ঘটনাটি নিয়ে আর বেশি বাড়াবাড়ির দরকার নেই। তোমাদের ১৫-২০ হাজার টাকার ব্যাবস্থা করে দিচ্ছি। তোমরা ঘটনাটি নিয়ে মামলা-মোকাদ্দমা না করে চেপে যাও। তবে আমি তাদের না করে দিয়েছি। আমরা আমাদের মেয়ের ইজ্জত বেঁচতে চাইনা। আমার আইনের মাধ্যমে বাবু মন্ডলের বিচার চাই।’

এ বিষয়ে রাজবাড়ী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার বলেন, ‘ঘটনাটি নিয়ে নাকি শিশুটির পরিবার স্থানীয়ভাবে মিমাংসা করবে শুনেছি। ঘটনাটি তদন্ত করে এজাহারটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হবে।’ (সূত্র- দৈনিক মাতৃকণ্ঠ)

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর