,

সর্বশেষ :
সাবেক সচিব ও ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার রাজবাড়ীর কৃতি সন্তান বজলুল করিম ও তার স্ত্রী করোনায় আক্রান্ত রাতের আঁধারে দরিদ্রদের বাড়ি বাড়ি ঈদ সামগ্রী পৌঁছে দিলো ‘মানব কল্যাণ ফাউন্ডেশন’ মন্দিরের সামনে গাঁজা খেতে নিষেধ করায় প্রতিমা ভাংচুর বড় ধরণের করোনা ঝুঁকিতে রাজবাড়ী বালিয়াকান্দির নবাবপুর ইউনিয়নের ১১০০ হতদরিদ্র পরিবারের মধ্যে সরকারি ত্রাণ বিতরণ বসন্তপুর ইউনিয়নের ৮০০ হতদরিদ্র পরিবারের মধ্যে সরকারি ত্রাণ বিতরণ হতদরিদ্রদের বাড়ি বাড়ি ঈদের খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিলেন প্রবাসীরা করোনা উপসর্গ নিয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু, দুই বাড়ি লকডাউন করলেন এসিল্যান্ড রাজবাড়ীর করোনা যোদ্ধা চিকিৎসকদের N95 মাস্ক দিলেন সাবেক জেলা জজ ‘আসমা আসাদ ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন’-এর উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী ও ঈদ উপহার বিতরণ

রাতের আধাঁরে দরিদ্রদের ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিলো ‘মানবিক রাজবাড়ী’

News

রাজবাড়ী : করানাভাইরাস পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করা ৫০টি হতদরিদ্র পরিবারের ঘরে ঘরে সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘মানবিক রাজবাড়ী’।

বুধবার (০৮ এপ্রিল) সন্ধ্যার পর থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত রাজবাড়ী পৌরসভার ৩, ৭ ও ৮ নম্বর ওয়ার্ডের হতদরিদ্র পরিবারগুলোর ঘরে ঘরে গিয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেন ‘মানবিক রাজবাড়ী’র প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মানবিক সাংবাদিক খন্দকার রবিউল ইসলাম।

সাংবাদিক খন্দকার রবিউল ইসলাম বলেন, ‘করোনাভাইরাসের এই পরিস্থিতিতে খেটে খাওয়া হতদরিদ্র মানুষগুলো খেয়ে না খেয়ে খুব মানবেতর জীবনযাপন করছেন। আমার কয়েকজন ফেসবুক বন্ধু ও বিত্তবান কয়েকজন ভাই মানবিক রাজবাড়ীকে আর্থিক সহযোগীতা করেছেন। সেসব মিলিয়ে আমাদের সংগঠেনর পক্ষ থেকে আমরা হতদরিদ্র পরিবারগুলোর মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করে চলেছি। তারই ধারাবাহিকতায় বুধবার সন্ধ্যার পর থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত আমি রাজবাড়ী পৌরসভার ৩, ৭ ও ৮ নম্বর ওয়ার্ডের হতদরিদ্র ২০টি পরিবারের বাড়ি বাড়ি গিয়ে পবিত্র শবে বরাতের খাদ্য অর্থাং দুই কেজি আটা, এক কেজি চিনি, কিসমিস, একটি সাবান ও একটি মাস্ক বিতরণ করেছি। এছাড়া ৩০টি হতদরিদ্র পরিবারের মধ্যে পাঁচ কেজি করে চাল, এক লিটার সয়াবিন তেল, আধা কেজি মসুরের ডাল, এক কেজি আলু, এক কেজি লবণ, একটি সাবান ও একটি করে মাস্ক বিতরণ করেছি।’

তিনি বলেন, ‘এছাড়াও মানবিক রাজবাড়ীর পক্ষ থেকে আমরা উত্তরবঙ্গ থেকে রাজবাড়ীতে কাজের সন্ধানে এসে আটকে যাওয়া মানুষের মধ্যে সকাল-সন্ধ্যা খাবার বিতরণ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি। এরই মধ্যে রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান মানবিক রাজবাড়ীকে তিন শত মাস্ক ও সাড়ে তিন শত হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়েছিলেন তা আমরা হতদরিদ্রদের মধ্যে বিতরণ করেছি। বিতরণ করেছি প্রায় তিন শত স্যাভলন সাবান। করোনাভাইরাসের এই দুর্যোগ যতোদিন থাকবে ততোদিন আমরা ধাপে ধাপে হতদিরদ্র পরিবারগুলোর মধ্যে খাদ্য সামগ্রী, সাবান, মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রাখবো। যে কারও যদি খাদ্য সহায়তা প্রয়োজন হয় তাহলে আমার মোবাইল নম্বরে (০১৭১২-০৮৪৮৭৬) ফোন করলেই আমি তার বাড়িতে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিবো ইন শা আল্লাহ্।’

উল্লেখ্য, সাংবাদিক খন্দকার রবিউল ইসলাম দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদ ও ইংরেজি দৈনিক দ্যা ডেইলী পোস্টে রাজবাড়ী জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। মানবিক কাজগুলোতে তার সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করছেন স্বেচ্ছাসেবক সাদমান সাকিব রাফি, রাজু আহস্মেদ, স্বাধীন বিশ্বাস ও মো. আসিফ।

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর