,

সর্বশেষ :
রাজবাড়ীর কৃতি সন্তান সাবেক জেলা জজ শামসুল হক এর বড় সন্তান শামসুল আরেফিন করোনা পজেটিভ। ভাড়া বকেয়া : শিক্ষার্থীর মূল্যবান সার্টিফিকেট ভাগাড়ে ফেললেন বাড়িওয়ালা। বসন্তপুর ইউপির মেম্বার জানে আলমের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকান্ডের অভিযোগ রাজবাড়ীর বসন্তপুর ইউনিয়নে বিট পুলিশিং কার্যক্রম শুরু দৌলতদিয়ায় যৌনকর্মী ও শিশুদের মধ্যে বিস্কুট বিতরণ রাজবাড়ীতে আশঙ্কাজনকভাবে বাড়ছে করোনা সংক্রমণের হার – Facebook Live রাজবাড়ীতে আশঙ্কাজনকভাবে বাড়ছে করোনা সংক্রমণের হার রাজবাড়ীতে গণমাধ্যমকর্মীদের সুরক্ষা সামগ্রী দিলো পারলিন গ্রুপ সেই মেধাবী শিক্ষার্থী শিমলার পাশে ‘রাজবাড়ী ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন’ বালিয়াকান্দিতে অস্ত্র-গুলিসহ ডাকাত দলের সদস্য আটক

করোনায় দিশেহারা হয়ে ডিসি’র কাছে সহায়তা চাইলেন কম্পিউটার কম্পোজ ও ফটোকপি ব্যবসায়ীরা

News

রাজবাড়ী : করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে সরকারী নির্দেশনা মেনে দীর্ঘদিন দোকান বন্ধ রাখায় পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন রাজবাড়ীর কম্পিউটার কম্পোজ ও ফটোকপি ব্যবসায়ী এবং তাদের দোকানের কর্মচারীরা।

যে কারণে বুধবার (২২ এপ্রিল) দুপুরে ত্রাণ ও আর্থিক সহায়তা চেয়ে জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগমের কাছে আবেদন করেছেন রাজবাড়ীর কম্পিউটার কম্পোজ ও ফটোকপি ব্যবসায়ী সমিতির সদস্যরা।

এ সময় সমিতির সভাপতি মো. ফিরোজ মিয়া, সাধারণ সম্পাদক মো. গোলাম মওলা রিমন, সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. ইসমাইল, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আরিফুল ইসলাম আরিফ ও কোষাধ্যক্ষ মোঃ শফিউদ্দিন আকরাম উপস্থিত ছিলেন।

সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. গোলাম মওলা রিমন বলেন, ‘আমাদের ব্যবসার মাধ্যমে আমরা দীর্ঘদিন ধরে মানুষকে সেবা দিয়ে আসছি। করোনাভাইরাসের কারণে গত ২৫শে মার্চ থেকে সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক আমরা দোকান বন্ধ রেখেছি। আমাদের উপার্জনের একমাত্র উৎস দোকান বন্ধ থাকার কারণে আমরা দোকান মালিকরা ও দোকানের কর্মচারীরা পরিবার-পরিজন নিয়ে অনাহারে/অর্ধাহারে দিনযাপন করছি। যে কারণে আমরা রাজবাড়ীর কম্পিউটার কম্পোজ ও ফটোকপি ব্যবসায়ী সমিতির ৩৭ জন সদস্য আমাদের ও আমাদের দোকানের কর্মচারীদের জন্য ত্রাণ ও আর্থিক সহায়তা চেয়ে জেলা প্রশাসক মহোদয়ের কাছে আবেদন করেছি। আমরা আশাবাদী জেলা প্রশাসক মহোদায় আমাদের মুখের দিকে চেয়ে শিগগিরই আমাদের জন্য সহায়তার ব্যবস্থা করবেন।’

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর