,

সর্বশেষ :
রাজবাড়ীতে ৩ লাখ মিটার কারেন্ট জাল জব্দ, ২ জেলের জরিমানা রাজবাড়ীর বসন্তপুরে কাজ না করেই প্রকল্পের আড়াই লাখ টাকা আত্মসাৎ! স্বেচ্ছাসেবক দলের প্রয়াত সভাপতি শফিউল বারীর স্মরণে রাজবাড়ীতে সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত সাংবাদিক রবিউল ইসলাম করোনায় আক্রান্ত বসন্তপুর স্টেশন বাজারে উন্নত মানের খাবার হোটেল চালু রাজবাড়ীর বসন্তপুরে ইউপি সদস্য ইয়াকুব আলীর স্মরণে শোক সভা ও দোয়া মাহফিল রাজবাড়ী পৌর ভূমি অফিসের ৩ কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত রাজবাড়ীতে ‘কৃষকের বাজার’ উদ্বোধন রাজবাড়ী প্রেসক্লাবের সভাপতি করোনায় আক্রান্ত রাজবাড়ীতে অবৈধ ট্রলি নিয়ে রেল লাইন পরিদর্শনে কর্মকর্তা; অত:পর দুর্ঘটনা!

চুরি হওয়া ভ্যানগাড়ি ফিরে পেয়ে আনন্দে আত্মহারা রিপন,পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

News

রাজবাড়ী : খুলনার কাস্টমঘাট মুন্সিপাড়া এলাকা থেকে চুরি হওয়া একটি ব্যাটারি চালিত ভ্যানগাড়ি রাজবাড়ী সদর উপজেলার গোয়ালন্দ মোড় থেকে উদ্ধার করে প্রকৃত মালিকের কাছে ফিরিয়ে দিয়েছে খানখানাপুর তদন্তকেন্দ্রের পুলিশ।

বুধবার (১৩ মে) রাত ৯টার দিকে ভ্যানগাড়ির মালিক রিপন হাওলাদারের কাছে গাড়িটি হস্তান্তর করা হয়।

খানখানাপুর পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মো. শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘করোনাভাইরাসের কারণে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণে রাখতে গোয়ালন্দ মোড় এলাকায় আমাদের নিয়মিত চেকপোস্ট ডিউটি চলছে। বুধবার সকাল ১১টার দিকে দূর থেকে আমাদের চেকপোস্ট দেখে একটি ভ্যানগাড়ির চালক গাড়ি রাস্তার উপর ফেলে রেখে দৌঁড় দেয়। আমরা বিষয়টি খেয়াল করে ভ্যানগাড়ির কাছে যেতে যেতে লোকটি দৌঁড়ে পালিয়ে যায়। এরপর পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান-পিপিএম স্যারকে বিষয়টি অবগত করে স্যারের নির্দেশে গাড়িটি উদ্ধার করে আমরা তদন্তকেন্দ্রে নিয়ে এসে দেখি গাড়ির পেছনে একটি মোবাইল নম্বর লেখা রয়েছে। ওই নম্বরে ফোন করলে অপর প্রান্ত থেকে রিপন হাওলাদার নামে এক ব্যক্তি জানায় ভ্যানগাড়িটি তার। তখন তাকে আমরা পুলিশ তদন্তকেন্দ্রে আসতে বললে সন্ধ্যার পর তিনি এখানে আসেন। আমরা তাকে ভ্যানগাড়িটির বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে বুঝতে পারি আসলেই গাড়িটি তার। পরে পুলিশ সুপার স্যারের নির্দেশে গাড়িটি তার কাছে হস্তান্তর করা হয় এবং রাত হয়ে যাওয়াতে তাকে খাওয়া-দাওয়া করিয়ে নিরাপদ স্থানে থাকার ব্যাবস্থা করা হয়। সকালে তিনি ভ্যানগাড়ি নিয়ে খুলনার উদ্দেশ্যে রওনা হবেন।’

ভ্যানগাড়ির মালিক রিপন হাওলাদার বলেন, ‘আমার বাড়ি বাগেরহাট জেলার মোরেলগঞ্জ উপজেলার বহরবুনিয়া গ্রামে। তবে আমি খুলনার কাস্টমঘাট মুন্সিপাড়া এলাকায় একটি মেসে ভাড়া থেকে বসবাস করি এবং ওই এলাকায় ভ্যানগাড়ি চালাই। মেসের পাশেই একটি গ্যারেজে প্রতিদিন আমি গাড়িটি চার্জ দেই। সোমবার (১১ মে) রাতে আমি গ্যারেজে গাড়িটি চার্জে রেখে মেসে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়ি। পরদিন সকাল ৮টার দিকে গ্যারেজে গিয়ে দেখি সেখানে আমার গাড়ি নেই। তখন আমি বুঝতে পারি আমার গাড়িটি চুরি হয়ে গেছে। এরপর বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও আমি গাড়িটি পাচ্ছিলাম না। বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে খানখানাপুর তদন্তকেন্দ্রের পুলিশ ভ্যানগাড়ির পিছনে থাকা আমার মোবাইল নম্বরে ফোন করে আমাকে জানান যে তারা আমার গাড়িটি উদ্ধার করেছেন। পরে আমি পুলিশ তদন্তকেন্দ্রে এলে তারা আমাকে গাড়িটি ফিরিয়ে দেন।’

রিপন হাওলাদার আরও বলেন, ‘আমার ও আমার পরিবারের বেঁচে থাকার একমাত্র অবলম্বন হচ্ছে এই ভ্যানগাড়িটি। এটি চুরি হয়ে যাবার পর আমি পাগলের মতো হয়ে গিয়েছিলাম। যখন পুলিশের ফোন পেলাম তখন আমার কাছে মনে হলো আমি আমার প্রাণটা ফিরে পেলাম। এজন্য আমি পুলিশের কাছে চিরকৃতজ্ঞ থাকবো।’  

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর