,

সর্বশেষ :
রাজবাড়ীর কৃতি সন্তান সাবেক জেলা জজ শামসুল হক এর বড় সন্তান শামসুল আরেফিন করোনা পজেটিভ। ভাড়া বকেয়া : শিক্ষার্থীর মূল্যবান সার্টিফিকেট ভাগাড়ে ফেললেন বাড়িওয়ালা। বসন্তপুর ইউপির মেম্বার জানে আলমের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকান্ডের অভিযোগ রাজবাড়ীর বসন্তপুর ইউনিয়নে বিট পুলিশিং কার্যক্রম শুরু দৌলতদিয়ায় যৌনকর্মী ও শিশুদের মধ্যে বিস্কুট বিতরণ রাজবাড়ীতে আশঙ্কাজনকভাবে বাড়ছে করোনা সংক্রমণের হার – Facebook Live রাজবাড়ীতে আশঙ্কাজনকভাবে বাড়ছে করোনা সংক্রমণের হার রাজবাড়ীতে গণমাধ্যমকর্মীদের সুরক্ষা সামগ্রী দিলো পারলিন গ্রুপ সেই মেধাবী শিক্ষার্থী শিমলার পাশে ‘রাজবাড়ী ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন’ বালিয়াকান্দিতে অস্ত্র-গুলিসহ ডাকাত দলের সদস্য আটক

রাজবাড়ীতে প্রতারণা করে দিনমজুরের জমি দখলের পাঁয়তারা

News
দিনমজুর ফরিদ আলী খান

রাজবাড়ী : রাজবাড়ী সদর উপজেলার বসন্তপুর ইউনিয়নের মুচিদহ গ্রামে প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে প্রতারণা করে জমি লিখে নেওয়ার অভিযোগ করেছেন ফরিদ আলী খান (৩৫) নামের এক দিনমজুর।

এ ঘটনায় সোমবার (২২ জুন) রাজবাড়ী সদর থানায় প্রতিবেশী হান্নান খানের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ফরিদ আলী।

ফরিদ আলী খান মুচিদহ গ্রামের মৃত চাদ আলী খানের ছেলে এবং অভিযুক্ত হান্নান খান একই গ্রামের মৃত মজিদ খানের ছেলে।

দিনমজুর ফরিদ আলী খান বলেন, ‘আমি আমার বসতবাড়ির বি.এস ৪১৩ নং খতিয়ানের ১১৩ নং দাগের ৩.৬৬ শতাংশ জমি বিক্রি করতে চাইলে প্রতিবেশী হান্নান খান তা কেনার আগ্রহ প্রকাশ করে এবং ১ লাখ ৬৫ হাজার টাকা দাম ধার্য্য করে। এরপর হান্নান খান আমাকে নানা প্রকার কথা বলায় আমি সরল বিশ্বাসে টাকা হাতে না নিয়েই গত ১৪ জুন রাজবাড়ী সদর সাব রেজিস্ট্রি অফিসে গিয়ে তার নামে জমি রেজিস্ট্রি করে দেই। কিন্তু জমি রেজিস্ট্রি হওয়ার পরেও সে আমার টাকা দেয় না। পরে আমি বুঝতে পারি যে সে প্রতারণামূলকভাবে আমার জমি রেজিস্ট্রি করে নিয়েছে। যে কারণে গতকাল ২২ জুন আমি হান্নান খানের বিরুদ্ধে রাজবাড়ী সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।’

ফরিদের মা পরী বেগম, হান্নান তাদের কারও সঙ্গে কোন কথা না বলে তার ছেলেকে ভুলিয়ে-ভালিয়ে জমিটুকু লিখে নিয়েছে বলে অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, তার একটাই ছেলে। সে কিছুটা সহজ-সরল। হান্নান জমি রেজিস্ট্রি করে টাকা না দেওয়ায় তারা এসব জানতে পারেন। এখন বসত বাড়ির এই জমি তারা ফেরত চান।

ফরিদের স্ত্রী সুলতানা বেগম বলেন, তার স্বামী কিছুটা সহজ সরল এবং দিনমজুরের কাজ করে সংসার চালায়। জমি রেজিস্ট্রির বিষয়ে তিনিও কিছুই জানতেন না। এখন ক্লাস সেভেনে পড়ুয়া ও ৭ বছর বয়স্ক দুই ছেলেকে নিয়ে তাদের পথে বসতে হবে জমি ফেরত না পেলে।

এ বিষয়ে কথা বলতে অভিযুক্ত হান্নান খানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ফরিদ জমি বিক্রি করতে চেয়েছে বলেই তিনি তার কাছ থেকে জমি কিনেছেন। জমি বাবদ তাকে ৫০ হাজার টাকা পরিশোধও করেন। বাকী টাকাও দিয়ে দেবেন।

রাজবাড়ী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার বলেন, মুচিদহে প্রতারণামূলকভাবে জমি রেজিস্ট্রি করে নেওয়ার বিষয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ এসেছে। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর