,

সর্বশেষ :
বসন্তপুর ইউপির ৯নং ওয়ার্ডকে ‘মডেল ওয়ার্ড’ বানাতে চান কাজী লুৎফর ৩ বছরেও শেষ হয়নি বাগমারা-জৌকুড়া সড়কের উন্নয়ন কাজ, এলাকাবাসীর বিক্ষোভ রাজবাড়ী বাজারে দোকানে ঢুকে মালিককে মারপিটের চেষ্টা রাজবাড়ীতে তুলে নিয়ে কিশোরীকে বিয়ে, কাজিসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হক’কে গণ সংবর্ধনা ফুডপ্যান্ডা এখন রাজবাড়ী সদরে বসন্তপুর ইউপির একটি মসজিদে চেয়ারম্যান প্রার্থী সাজ্জাদ বিশ্বাসের অনুদান প্রদান দলীয় মনোনয়ন পেলে আবারও নির্বাচন করতে প্রস্তুত মহম্মদ আলী চৌধুরী রাজবাড়ী সদরের বসন্তপুর ইউপির ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য পদে প্রার্থী হচ্ছেন কাজী লুৎফর রহমান রাজবাড়ী সদরের ইউএনও সাঈদুজ্জামান খানকে বদলি

চিত্রশিল্পী মনসুর উল করিমের প্রতি রাজবাড়ী জেলা প্রশাসনের অন্তিম শ্রদ্ধা

News

রাজবাড়ী : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের সাবেক অধ্যাপক ও একুশে পদকপ্রাপ্ত খ্যাতনামা চিত্রশিল্পী মনসুর উল করিমের মরদেহ রাত সাড়ে ৮টার দিকে রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নেওয়া হয়। এ সময় রাজবাড়ী জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে খ্যাতনামা এই চিত্রশিল্পীর প্রতি শেষ শ্রদ্ধা ও শোকাহত পরিবারকে সমবেদনা জানান সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আরিফুর রহমান।

পরে রাত সাড়ে ৯টায় মরহুমের নামাজে জানাজায় অংশ নেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) আরিফুর রহমান।

সোমবার (০৫ অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন চিত্রশিল্পী মনসুর উল করিম। সন্ধ্যায় তার মরদেহ রাজবাড়ী জেলার রামকান্তপুর ইউনিয়নের স্বর্ণ শিমুলতলা গ্রামে তার নিজের প্রতিষ্ঠিত ‘বুনন আর্ট স্পেস’এ নেওয়া হয়। রাত সাড়ে ৯টায় রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নামাজে জানাজা শেষে তাকে ভবানীপুর পৌর কবরস্থানে দাফন করা হয়।

চিত্রশিল্পী মনসুর উল করিম ১৯৫০ সালে রাজবাড়ীতে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭২ সালে ঢাকা আর্ট ইনস্টিটিউট থেকে চারুকলায় স্নাতক এবং ১৯৭৪ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন। ১৯৭৭ সালে তিনি বাংলাদেশ সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় আয়োজিত স্বাধীনতা দিবস চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতায় প্রথম পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৯২ সালে তিনি বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত একাদশ জাতীয় চারুকলা প্রদর্শনী থেকে পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৯৩ সালে তিনি বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি পুরস্কার এবং বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত ৬ষ্ঠ এশিয়ার আর্ট বিয়েনাল পদক লাভ করেন। ১৯৯৪ সালে ভারতীয় ললিতকলা একাডেমি আয়োজিত ৮ম ভারতীয় ত্রিবার্ষিক আন্তর্জাতিক চারুকলা প্রদর্শনী থেকে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার লাভ করেন। চিত্রকলায় সামগ্রিক অবদানের জন্য ২০০৯ সালে তিনি একুশে পদক লাভ করেন। ২০১৪ সালে তিনি বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সুলতান পদক লাভ করেন।

পড়াশোনা ও দীর্ঘ চল্লিশ বছরের কর্মজীবন শেষে তিনি নিজ বাড়ি রাজবাড়ী জেলার রামকান্তপুর ইউনিয়নের স্বর্ণ শিমুলতলা গ্রামে ২০১৫ সালে ৩ একর জমির উপর গড়ে তুলেন ‘বুনন আর্ট স্পেস’। তার এই প্রতিষ্ঠানের উদ্দেশ্য হল এখান থেকে খ্যাতনামা চিত্রশিল্পী গড়ে তোলা।

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর