দৌলতদিয়া ফেরি/লঞ্চ ঘাট যানজটমুক্ত রাখতে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসনের উদ্যোগ

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ৯:০৭ অপরাহ্ণ ,২৫ জুলাই, ২০১৪ | আপডেট: ৯:০৭ অপরাহ্ণ ,২৫ জুলাই, ২০১৪
পিকচার

রাজবাড়ী ডেস্ক : পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে সুষ্ঠু, সুশৃংখল ও নিরাপদ নৌ চলাচল, যাত্রীদের নিরাপত্তা বিধান ও দৌলতদিয়া ফেরি/লঞ্চ ঘাট যানজটমুক্ত রাখার লক্ষ্যে

রাজবাড়ী জেলা প্রশাসনের উদ্যোগসমূহঃ
পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে সুষ্ঠু, সুশৃংখল ও নিরাপদ নৌ চলাচল, যাত্রীদের নিরাপত্তা বিধান ও দৌলতদিয়া ফেরি/লঞ্চ ঘাট যানজটমুক্ত রাখার লক্ষ্যে রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ রফিকুল ইসলাম খান গত ১৫/৭/২০১৪ তারিখে ঘাট ব্যবস্থাপনা এবং নৌপথে চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী কার্যক্রম ও নৌ-ডাকাতি বন্ধের লক্ষ্যে গঠিত জেলা কমিটির সভা অনুষ্ঠান ও ঘাট এলাকা একাধিকবার সরেজমিনে পরিদর্শন করে পুলিশ বিভাগ, বিআইডব্লিউটিসি, বিআইডব্লিউটিএ, সড়ক ও জনপথ বিভাগসহ ঘাট সংশ্লিষ্ট সকল বিভাগ/পরিবহন মালিক ও শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দের সাথে সুষম সমন্বয় করে নিম্নবর্ণিত পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেনঃ

(১) ঘাট এলাকায় আইন-শৃংখলা রক্ষা, যাত্রীদের নিরাপত্তা বিধান, ঘাট এলাকা যানজটমুক্ত রাখা এবং সার্বিক নিরাপত্তা বিধানের লক্ষে ২ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এর নেতৃত্বে মোবাইল কোট পরিচালনা। সর্বোপরি, ঘাট এলাকায় যাত্রীদের জানমালের নিরাপত্তার জন্য জেলা প্রশাসন, পুলিশ বিআগ, উপজেলা প্রশাসন সমন্বয়ে ভিজিলেন্স টিম গঠন ও কার্যকরকরণ;

(২) আইন-শৃংখলা রক্ষা, যাত্রীদের নিরাপত্তা বিধান, ঘাট এলাকা যানজটমুক্ত রাখা এবং সার্বিক নিরাপত্তা বিধানের লক্ষে ঘাট এলাকায় পর্যাপ্ত পুলিশ, র্যা ব ও আনসার বাহিনীর তৎপরতা নিশ্চিতকরণ;

(৩) দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ফেরিরুটে ১৭ টি ফেরি সার্বক্ষণিক চলাচল নিশ্চিতকরণ এবং জরুরী যোগাযোগের সুবিধার্থে ফেরিসমূহ এবং ফেরি মাস্টার অফিসারদের মোবাইল নম্বর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়সহ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণের নিকট সংরক্ষণ;

(৪) লঞ্চে ধারণ ক্ষমতার অধিক যাত্রী পরিবহন নিয়ন্ত্রণ, অতিরিক্ত ভাড়া আদায় প্রতিহতকরণ এবং যাত্রীদের লঞ্চে উঠানামার সুবিধার্থে চওড়া সিড়ির ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে ভিজিলেন্স টিম গঠন;

(৫) দৌলতদিয়া ফেরিঘাটসমূহের এপ্রোচ সড়ক মেরামত/সংস্কারকরণ;

(৬) ঈদের তিনদিন পূর্ব থেকে ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যানের ফেরি পারাপার বন্ধকরণ;

(৭) সুবিধাভোগী দালাল চক্র যাতে ঘাট এলাকায় কৃত্রিম যানজট সূষ্টি করতে না পারে তা কঠোর নজরদারীতে রাখা;

(৮) দুর্ঘটনা কবলিত/ত্রুটিপূর্ণ যানবাহন দ্রুত অপসারণের লক্ষ্যে দৌলতদিয়া ঘাটে চালকসহ রেকার প্রস্তুত রাখা;

(৯) টার্মিনালসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থাকরণ;
(১০) চাঁদাবাজি, ছিনতাই, দালাল, পকেটমার ও অজ্ঞান পার্টির দৌরাত্ম প্রতিরোধে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তৎপরতা বৃদ্ধিকরণ;

(১১) সুষ্ঠুভাবে যানবাহন চলাচলে সহায়তাকরণ, যাত্রীদের অহেতুক হয়রানি বন্ধকরণ, অতিরিক্ত ভাড়া আদায় বন্ধকরণ, খালি ট্রাকে ও বাসের ছাদে যাত্রী উঠানো বন্ধকরণ ইত্যাদি ক্ষেত্রে গোয়ালন্দ উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ বিভাগকে সহায়তা করার জন্য রাজবাড়ী জেলা পরিবহন মালিক গ্রুপ ও শ্রমিক নেতৃবৃন্দকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান;

(১২) যাত্রী সাধারণের সুবিধার্থে টার্মিনাল ও মহাসড়কের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে স্থায়ী ও অস্থায়ী টয়লেটের ব্যবস্থাকরণ;

(১৩) রাতের বেলায় সকল প্রকার মালবাহী জাহাজ, বালুবাহী বাল্কহেড চলাচল বন্ধকরণ;

(১৪) মহাসড়ক ও নৌপথে ডাকাতি, চাঁদাবাজি, শ্রমিক, যাত্রীদের হয়রানি ও ভীতিমূলক অবস্থা প্রতিরোধে পুলিশের টহল জোরদারকরণ,

(১৫) অনাকাংখিত দুর্ঘটনায় আহতদের উদ্ধার ও প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে যথাক্রমে ফায়ার সার্র্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এবং স্বাস্থ্য বিভাগকে সার্বক্ষণিক প্রস্তুত থাকতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

আশা করা যাচ্ছে আসন্ন পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরে যাত্রীদের নিরাপদ চলাচল নিশ্চিতকরণে গৃহীত ব্যবস্থা ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে।

 

 

আপডেট : শনিবার ২৬ জুলাই,২০১৪/ ০৩:০৬ এএম/ আশিক


এই নিউজটি 1331 বার পড়া হয়েছে
[fbcomments"]