,

পাংশার কলিমহর ইউপিতে মাছ লুটের ঘটনায় গ্রেপ্তার-১

News

মোক্তার হোসেন, স্টাফ রিপোর্টার, পাংশা : রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার কলিমহর ইউপির ফলিমারা গ্রামে পুকুরের মাছ লুট ও পুকুরপাড়ের বাগানের ৩টি মেহগনি গাছ কেটে ক্ষতিসাধনের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার প্রধান আসামী খালেক মিয়া (৪৫) কে থানা পুলিশ ২ আগস্ট শনিবার সকালে গ্রেপ্তার করেছে। খালেক ফলিমারা গ্রামের মৃত জলিল মিয়ার ছেলে।

জানা গেছে, উপজেলার কলিমহর ইউপির ফলিমারা গ্রামের আবুল হাসান অরফে বাসু মিয়া ও তার স্ত্রী জাহানারা বেগম ব্যবসায়ীক কারণে ঢাকায় বসবাস করেন। গত শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে খালেক মিয়াসহ তার অনুসারী ১০/১২ জনের একটি দল জোর করে জাহানারা বেগমের ভোগদলীয় পুকুর থেকে ৫০ হাজার টাকা মূল্যের বিভিন্ন জাতের মাছ লুটসহ পুকুরপাড়ের বাগান থেকে ৩০ হাজার টাকা মূল্যের ৩টি মেহগনি গাছ কেটে নেয়।

এ ঘটনায় বাড়ির কেয়ারটেকার আলমগীর হোসেন বাদি হয়ে খালেক মিয়াসহ ৪জনকে এজাহারনামীয় ও আরো ৭/৮ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে পাংশা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ১। পাংশা থানার ওসি মোহাম্মদ আবুল বাশার মিয়ার সার্বিক তত্ত্বাবধানে এসআই হাসিনা বেগমসহ সঙ্গীয় পুলিশদল শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বিশেষ অভিযান চালিয়ে মামলার প্রধান আসামী খালেক মিয়াকে গ্রেপ্তার করেন।

 

 

আপডেট : রবিবার ৩ আগষ্ট,২০১৪/ ১২:৫৬ এএম/ আশিক

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর