,

পাংশায় মোবাইলে নগ্ন ছবি ধারনের লজ্জা সইতে না পেরে কলেজ ছাত্রীর আত্মহত্যা : ৩জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা

News

স্টাফ রিপোর্টার : জোর পূর্বক মোবাইলে নগ্ন ছবি ধারণের লজ্জা সইতে না পেরে পাংশা উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের গোপিনগর গ্রামের কলেজ ছাত্রী নিপা আক্তারের আত্মহত্যার ঘটনায় ১২ আগস্ট মঙ্গলবার ৩জনের বিরুদ্ধে রাজবাড়ীর ২নং আমলী আদালতে মামলা দায়ের হয়েছে।

নিহত নিপা আক্তারের পিতা হবিবর রহমান সরদার বাদী হয়ে দন্ড বিধির ৩০৬/৫০৯/৩৫৪/১০৯ ধারায় মামলাটি দায়ের করেছেন। বিচারক মামলাটিকে এফআইআর হিসেবে রেকর্ড করার জন্য পাংশা থানার ওসি’কে আদেশ দিয়েছেন।

মামলা সুত্রে প্রকাশ, নিপা আক্তার হাবাসপুরের ড.কাজী মোতাহার হোসেন কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক ১ম বর্ষের ছাত্রী ছিল। এসএসসি পরীক্ষায় সে এ প্লাস পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছিল। কলেজে আসা-যাওয়ার পথে তাকে বাহাদুরপুরের হামিদ মাস্টারের ছেলে মাহবুব ওরফে আলফাজ(২১) উত্যক্ত করতো। আলফাজকে এ কাজে সহযোগিতা ও প্ররোচিত করতো বাহাদুরপুরের আকতার মল্লিকের ছেলে টুটুল মল্লিক(২১) এবং গোপিনগরের আরশেদ মন্ডলের মেয়ে মিতা আক্তার(১৯)। নিপা আক্তার ঘটনাটি প্রকাশ করে দেয়ায় আলফাজ, টুটুল ও মিতার অভিভাবকরা তাদেরকে ধমক-শাসন করে। এতে তারা ক্ষুদ্ধ হয়। গত ৩রা আগস্ট বেলা ১১টার দিকে মিতা আক্তার কৌশলে নিপা আক্তারের বাড়ীতে এসে তাদের বাড়ীতে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে নেয়ার পর আলফাজ, টুটুল ও মিতা ঘরের দরজা বন্ধ করে জোর পূর্বক নিপার নগ্ন ছবি মোবাইলে ধারণ করে এবং তাদের কথার বাইরে গেলে ছবিগুলো ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার হুমকী দেয়। এতে চরমভাবে মানসিক আঘাত পেয়ে বাড়ীতে ফিরে দুপুর ২টার দিকে নিপা তার শয়ন কক্ষের বাঁশের আড়ার সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে।

 

 

আপডেট : বুধবার ১৩ আগষ্ট,২০১৪/ ০৪:৩৩ পিএম/ আশিক

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর