,

সর্বশেষ :
শহীদওহাবপুর ও খানখানাপুর ইউনিয়নে বিট পুলিশিং কার্যক্রম শুরু ‘খানখানাপুর প্রবাসী কল্যাণ সংগঠন’-এর উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ রাজবাড়ীর কৃতি সন্তান সাবেক জেলা জজ শামসুল হক এর বড় সন্তান শামসুল আরেফিন করোনা পজেটিভ। ভাড়া বকেয়া : শিক্ষার্থীর মূল্যবান সার্টিফিকেট ভাগাড়ে ফেললেন বাড়িওয়ালা। বসন্তপুর ইউপির মেম্বার জানে আলমের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকান্ডের অভিযোগ রাজবাড়ীর বসন্তপুর ইউনিয়নে বিট পুলিশিং কার্যক্রম শুরু দৌলতদিয়ায় যৌনকর্মী ও শিশুদের মধ্যে বিস্কুট বিতরণ রাজবাড়ীতে আশঙ্কাজনকভাবে বাড়ছে করোনা সংক্রমণের হার – Facebook Live রাজবাড়ীতে আশঙ্কাজনকভাবে বাড়ছে করোনা সংক্রমণের হার রাজবাড়ীতে গণমাধ্যমকর্মীদের সুরক্ষা সামগ্রী দিলো পারলিন গ্রুপ

রাজবাড়ীতে বিএনপির কালো পতাকা মিছিল

News

স্টাফ রিপোর্টার : ফিলিস্তিনের গাজায় ইসরাইলী বাহিনীর নৃশংস হামলা, আওয়ামীলীগ সরকার কর্তৃক গণমাধ্যমের উপর কালো নীতি প্রণয়ন ও সম্প্রচার মাধ্যমের স্বাধীনতা হরনের চেষ্টার প্রতিবাদে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচী অনুযায়ী ১৬ই আগস্ট শনিবার বিকেলে পুলিশের বাঁধা অতিক্রম করে রাজবাড়ীতে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০দলীয় জোটের উদ্যোগে কালো পতাকা মিছিল ও পথসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে জেলা বিএনপি কার্যালয় প্রাঙ্গন থেকে ছোট ছোট লাঠির মাথায় বাঁধা কালো পতাকা নিয়ে মিছিল বের হলে আজাদী ময়দানের প্রবেশ পথে ব্যারিকেড দেয় পুলিশ। প্রায় ২০ মিনিট দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তাদের সাথে বিএনপি নেতাদের কথাবার্তার হয়। এ সময় বিএনপির পক্ষ থেকে ‘পান্না চত্বর পর্যন্ত কোয়ার্টার কিলোমিটার পথ মিছিল করার এবং শান্তি ভঙ্গের মতো কোন কাজ না করার প্রতিশ্র“তি দিয়ে পুলিশের কাছে অনুমতি চেয়ে অনুরোধ করা হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ ‘নির্ধারণ করে দেয়া রুটে শৃঙ্খলা-বজায় রেখে করার শর্তে’ মিছিলের অনুমতি দিলে শোক মিছিলটি শুরু হয়। কয়েক মিনিটের মধ্যে ঐ নির্দিষ্ট পথটুকুতে (প্রেসক্লাব প্রাঙ্গন-পান্না চত্বর) শোক র‌্যালী করার পর ‘পুলিশের অনুমতিক্রমে’ আজাদী ময়দানের প্রবেশ মুখে সংক্ষিপ্ত পথসভার মাধ্যমে কর্মসূচী সমাপ্ত করা হয়।

পথসভায় বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাডঃ এম.এ খালেক, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও পৌর বিএনপির সভাপতি অধ্যক্ষ মঞ্জুরুল আলম দুলাল এবং জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আফছার আলী সরদার। ২০ দলীয় জোটের ২শরীক বিএনপি ও জামায়াতের প্রায় দেড়শত নেতাকর্মী শোক মিছিলে অংশগ্রহন করেন। কর্মসূচীতে জামায়াতের কোন নেতাকে পথসভায় বক্তব্য দেয়ার সুযোগ দেয়া হয়নি। এ কারনে কর্মসূচীতে অংশগ্রহনকারী জামায়াত-শিবিরের মধ্যে স্পষ্ঠ বিষন্নতা লক্ষ্য করা যায়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে রাজবাড়ী পৌর জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারী ডাঃ মোঃ হাফিজুর রহমান বলেন, কর্মসূচী শেষে বিষয়টি বিএনপির নেতাদের কাছে উত্থাপন করা হয়েছিল। তারা দুঃখ প্রকাশ করেছেন।’

 

আপডেট : শনিবার ১৬ আগষ্ট,২০১৪/ ১১:৩৫ পিএম/ আশিক

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর