কল্যাণপুরে ছিনতাই’র ঘটনায় মামলা : আসামীরা ধরা পড়েনি

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ৫:০৬ পূর্বাহ্ণ ,১৮ আগস্ট, ২০১৪ | আপডেট: ৫:০৬ পূর্বাহ্ণ ,১৮ আগস্ট, ২০১৪
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার : ট্রান্সকম বেভারেজ লিঃ (সেভেন আপ) কোম্পানীর রাজবাড়ী পরিবেশকের ডেলিভারী কর্মচারী খলিল (৩৪)কে কুপিয়ে ৮০হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় মামলা হলেও আসামীরা গ্রেফতার হয়নি।

গত ১০ই আগস্ট রাত সাড়ে ৮টার দিকে সদর উপজেলার কল্যাণপুর ও আহলাদীপুরের মাঝামাঝি পাকা রাস্তার উপর পোল্ট্রি ফার্মের সামনে খলিলকে কুপিয়ে ৮০হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় ট্রান্সকম বেভারেজ লিঃ(সেভেন আপ) কোম্পানীর রাজবাড়ী সদরের পরিবেশক বিনোদপুর গ্রামের শ্যামল কুমার শিকদার বাদী হয়ে ৪জনের নাম উল্লে¬খ ও অজ্ঞাত ৪/৫জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করে। রাজবাড়ী থানার মামলা নং-২২, তাং-১৬/৮/২০১৪, ধারাঃ ১৪৩/৩৪১/৩২৩/৩২৬/৩৭৯/৫০৬/১১৪দঃ বিঃ। আসামীরা হলো ঃ কল্যাণপুর লাড়িপাড়া মাদ্রাসার এলাকার ফজর মুন্সীর ছেলে হাবিব(২৭), ইসমাইল(৩১), দর্পনারায়পুন গ্রামের হাশেম খানের ছেলে শাহীন(২৮) ও মোকলেছ খানের ছেলে জুয়েল খান (৩১)সহ অজ্ঞাত ৪/৫জন।

ট্রান্সকম বেভারেজ লিঃ (সেভেন আপ) কোম্পানীর রাজবাড়ীর পরিবেশক শ্যামল কুমার শিকদার জানান, তার ডেলিভারী কর্মচারী বিনোদপুর গ্রামের গফুরুল রহমানের ছেলে খলিল গত ১০ই আগস্ট রাত সাড়ে ৮টার দিকে গোয়ালন্দ মোড় হতে মালামাল বিক্রি করে নছিমনযোগে ফেরার পথে কল্যাণপুর ও আহলাদীপুরের মাঝামাঝি পাকা রাস্তার উপর পোল্ট্রি ফার্মের সামনে পৌছালে পূর্ব শক্রতার জেরে উল্লেখিতরা মোটর সাইকেলযোগে তার বহনকৃত নছিমনটির গতিরোধ করে। এরপর তারা খলিলকে নছিমন থেকে নামিয়ে তার হাতে থাকা টাকার ব্যাগ ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। এতে বাঁধা দেয়ায় তারা ধারালো চাপাতি দিয়ে তাকে কুপিয়ে জখম করে ব্যাগের মধ্যে থাকা ৮০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এ সময় তার চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে সদর থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ছিনতাই হওয়া ৮০হাজার টাকা উদ্ধার বা ঘটনার সাথে জড়িত কেউ গ্রেফতার হয়নি।

 

 

আপডেট : সোমবার ১৮ আগষ্ট,২০১৪/ ১১:০৪ এএম/ আশিক


এই নিউজটি 1091 বার পড়া হয়েছে
[fbcomments"]