বালিয়াকান্দির নারুয়ায় ২য় শ্রেণীর স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ৬:৩৭ পূর্বাহ্ণ ,১৯ আগস্ট, ২০১৪ | আপডেট: ৬:৩৭ পূর্বাহ্ণ ,১৯ আগস্ট, ২০১৪
পিকচার

বালিয়াকান্দি প্রতিনিধি : বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের পাটকিয়াবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেনীর ছাত্রী সুমাইয়া শিমু(৮) গত রবিবার বিকেলে নিজ বাড়ীর ছাপড়া ঘরে গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করে।

শিমুর পিতা ভ্যান চালক আঃ আলীম জানান, বাবার জন্য মাঠে খাবার নিয়ে খাইয়ে দেয়ার সময় আবদার করে লুডুস খাওয়ার জন্য ডিম ক্রয় করে দিতে। আদরের বড় মেয়ের আবদারে তার পিতা পকেট থেকে ১০ টাকা নিয়ে ডিম ক্রয় করতে বলে। বাড়ীতে এসে নাচে-গানে মাতিয়ে তোলে দ্বিতীয় শ্রেনীর স্কুল ছাত্রী সুমাইয়া শিমু(৮)। তারপর বাবার জন্য খাবার পেচিয়ে নেওয়ার ওরনা গলায় পেচানো অবস্থায় নিজ ছাপড়া ঘরের দরজা বন্ধ করা অবস্থায় আড়ার সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া গেল। তার জ্বিনের আছর ছিল ওই জ্বিনই তাকে হত্যা করেছে।

তিনি আরও জানান, সে মাঠে পাট এড়ানোর কাজ করছিল। তার স্ত্রী পাট শুকাচ্ছিল। দুই সন্তানের মধ্যে শিমু বড়। শিমু তাকে খাবার দিয়ে বাড়ীতে চলে আসে। নাচ-গান করে মাতিয়ে তোলে বাড়ী। তারপর ঘরের দরজা বন্ধ করা অবস্থায় খাবার নেওয়ার আসবাবপত্র বাধার ওরনা গলায় পেছানো অবস্থায় দেখতে পেয়ে বাড়ীর লোকজন খবর দিলে দৌড়ে এসে মৃত অবস্থায় দেখতে পাই।

পাটকিয়াবাড়ী পুর্বপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ শফিউদ্দিন জানান, সুমাইয়া শিমু আমার স্কুলের দ্বিতীয় শ্রেনীর ছাত্রী। আমিই ওদের ক্লাস নেই। ও খুব চঞ্চল, রাগী ও জেদি প্রকৃতির ছিল। তাই সবাই তাকে আদর করতো।

বালিয়াকান্দি থানার এস.আই শহিদুল ইসলাম জানান, থানার ওসি আবু শ্যামা মোঃ ইকবাল হায়াৎসহ ঘটনাস্থলে যাই। মৃত্যুর সঠিক কারণ নিরূপন করতে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল সোমবার লাশের ময়না তদন্তের জন্য রাজবাড়ী মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলে বলা সম্ভব হবে।

 

 

আপডেট : মঙ্গলবার ১৯ আগষ্ট,২০১৪/ ১২:৩৫ পিএম/ আশিক


এই নিউজটি 1309 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments