গোয়ালন্দে পদ্মা পাড়ের কয়েক গ্রামে চলছে ভাঙন আতঙ্ক : ঘর-বাড়ী নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়েছে অর্ধ শতাধিক পরিবার

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ৫:০৯ পূর্বাহ্ণ ,২৩ আগস্ট, ২০১৪ | আপডেট: ৫:৩৯ পূর্বাহ্ণ ,২৩ আগস্ট, ২০১৪
পিকচার

গোয়ালন্দ প্রতিনিধি : হঠাৎ করে পদ্মার নদীর পানি বৃদ্ধির ফলে গত কয়েকদিনে গোয়ালন্দ উপজেলার পদ্মা তীরবর্তী দেবগ্রাম ও দৌলতদিয়া ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এতে ফসলের ক্ষতিসহ পানিবন্দি হয়েছে কয়েকশ’ পরিবার। পাশাপাশি ভাঙ্গন আতঙ্কে নিজ ভিটে-মাটি ছেড়েছেন অর্ধশত পরিবার।

গোয়ালন্দ উপজেলার ভাঙন কবলিত এলাকা ঘুরে দেখা যায়, উপজেলার দেবগ্রাম ইউনিয়নের চর বেথুরী, অন্তার মোড়, চরবরাট, টেংড়াপাড়াগ্রাম, দৌলতদিয়া ইউনিয়নের নহাড়ি মন্ডলের পাড়া, ঈশাইল শিবরামপুর ও কিয়ামদ্দিন মন্ডলপাড় গ্রাম এলাকায় শুরু হয়েছে নদী ভাঙন। ভাঙন আতঙ্কে ঘর-বাড়ি সরিয়ে নেয়া দেবগ্রাম ইউনিয়নের বেথুরী গ্রামের হাসমত খা, শুকুর খা, লতিফ সরদার, আক্কাস আলীসহ জানান, কয়েকদিন ধরে পদ্মায় পানি বৃদ্ধির পাশাপাশি নদীতে প্রচন্ড স্রোতে ও ঢেউয়ের সৃষ্টি হওয়ায় সেখানে নদী ভাঙন দেখা দিয়েছে। কিছু ফসলী জমি ভাঙন কবলে পড়ে নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে। পাশাপাশি ভাঙন আতঙ্কে এলাকার অর্ধশতাধিক পরিবার ইতিমধ্যে তাদের ঘর বাড়ী ভেঙে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়েছে।

দেবগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আতর আলী সরদার বলেন, গত কয়েক বছরে ভাঙ্গনে তার ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রাম পদ্মায় বিলীন হয়ে গেছে। এ বছর ভাঙ্গন আতঙ্কে ইতিমধ্যে বেথুরী জামে মসজিদ, বেথুরী সরকারী পাঠাগার অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। এছাড়া হুমকীর মধ্যে রয়েছে বাঘাবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও দেবগ্রাম রেজিঃ প্রাথমিক বিদ্যালয়। গত কয়েক দিনে পদ্মায় পানি বৃদ্ধির ফলে এ ইউনিয়নের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এতে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

 

আপডেট : শনিবার ২৩ আগষ্ট,২০১৪/ ১১:০১ পিএম/ আশিক

 


এই নিউজটি 1345 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments