রাজবাড়ী জেলা গণফোরাম প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই নিষ্ক্রিয়!

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ৬:২০ পূর্বাহ্ণ ,৩১ আগস্ট, ২০১৪ | আপডেট: ৬:২০ পূর্বাহ্ণ ,৩১ আগস্ট, ২০১৪
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার : প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই নিষ্ক্রিয় রাজবাড়ী জেলা গণফোরাম। নাম সর্বস্ব জেলা কমিটি থাকলেও অদ্যাবধি কেউ দলটির কোন কর্মসূচী পালন করতে দেখেনি। এমনকি দলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি প্রয়াত এডঃ চিত্ত রঞ্জন গুহের মৃত্যুর পর এবং তার ১ম মৃত্যু বার্ষিকীতেও কোন কর্মসূচী পালিত হয়নি!

গত ২৯ আগস্ট ছিল দলটির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। আগের দিন ২৮ আগস্ট রাতে দলের জেলা শাখার সভাপতি এডঃ দেবেন্দ্র নাথ রায় মাতৃকন্ঠ কার্যালয়ে এসে ‘প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে রাজবাড়ী রেলগেট চত্বরে বিশাল জনসভার আয়োজন করা হয়েছে এবং তাতে অমুক অমুক বক্তব্য দেবেন’ উল্লেখ করে অগ্রীম সংবাদ প্রকাশ করার অনুরোধ জানান। অতীত অভিজ্ঞতার আলোকে তার বক্তব্য বিশ্বাসযোগ্য না হওয়ায় অগ্রীম সংবাদ পরিবেশন না করে তাদের কর্মসূচীর অপেক্ষায় থাকা হয়। নির্ধারিত সময়ে তাদের ঘোষিত স্থানে উপস্থিত হয়েও কর্মসূচীর কোন চিহ্ন না পেয়ে ফিরে আসা হয়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে দলের জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ওয়াজিউল্লাহ মন্টু বলেন, ‘সত্য অস্বীকার করছি না। বিভিন্ন সময় দলীয় প্রোগ্রাম দেয়ার উদ্যোগ নিয়েও হয়ে ওঠেনি। বর্তমান সভাপতি সব বিষয়েই এগিয়ে থাকতে চান কিন্তু পেরে ওঠেন না।’ দলের কমিটির ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘শুধুমাত্র জেলা কমিটি ছাড়া রাজবাড়ীতে দলের আর কোন কমিটি নেই। কিছুদিন পূর্বে পুনঃর্গঠিত জেলা কমিটির সভাপতি নিজেই কেন্দ্র থেকে কমিটি অনুমোদন করিয়ে আনেন। অনেকবার তার কাছে কমিটির কপি চেয়েছি। দেই-দিচ্ছি বলেও তিনি দেননি। হিসেবেতো কমিটির সকল কাগজপত্র সেক্রেটারীর কাছেই থাকার কথা। ২৬ সদস্যের জেলা কমিটি হওয়ার কথা থাকলেও তিনি বলছেন সদস্য আরো বেশী হয়েছে। তার কাছ থেকে কমিটির কাগজ নিয়ে দেখতে পারলে বোঝা যেত কমিটি কত সদস্যের হয়েছে।’ দলের জেলা শাখার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি প্রয়াত এডঃ চিত্ত রঞ্জন গুহের ১ম মৃত্যু বার্ষিকীতে অগ্রীম ঘোষণা দিয়েও কর্মসূচী পালিত না হওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘তার মৃত্যুর পর কেন্দ্রের পরামর্শেই সর্বদলীয়ভাবে (গণসঙ্গীতের মতো!) শোক সভার আয়োজন করা হয়েছিল। আর ১ম মৃত্যু বার্ষিকীতে যে স্মরণ সভার আয়োজন করা হয়েছিল তাতে প্রধান অতিথি করা হয়েছিল কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টুকে। শেষ মুহুর্তে এসে তিনি সময় দিতে না পারায় সেই কর্মসূচী পালন করা সম্ভব হয়নি।’ সর্বশেষ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে কর্মসূচীর ঘোষণা দিয়েও কেন করলেন না-জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মার্কেটে (রাজবাড়ী পৌর মিলেনিয়াম মার্কেট-২) কয়েকজন নেতাকর্মী মিলে আলোচনা করেছি। গ্যাদারিং হবে বলে সাংবাদিকদের বলা হয়নি।’
এ ব্যাপারে কথা বলার জন্য জেলা গণফোরামের সভাপতি এডঃ দেবেন্দ্র নাথ রায়ের মোবাইলে অসংখ্যবার ফোন করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

আপডেট : রবিবার ৩১ আগষ্ট,২০১৪/ ১২:১৯ পিএম/ আশিক

 

 

 


এই নিউজটি 1192 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments