,

সর্বশেষ :
রাতের আঁধারে দরিদ্রদের বাড়ি বাড়ি ঈদ সামগ্রী পৌঁছে দিলো ‘মানব কল্যাণ ফাউন্ডেশন’ মন্দিরের সামনে গাঁজা খেতে নিষেধ করায় প্রতিমা ভাংচুর বড় ধরণের করোনা ঝুঁকিতে রাজবাড়ী বালিয়াকান্দির নবাবপুর ইউনিয়নের ১১০০ হতদরিদ্র পরিবারের মধ্যে সরকারি ত্রাণ বিতরণ বসন্তপুর ইউনিয়নের ৮০০ হতদরিদ্র পরিবারের মধ্যে সরকারি ত্রাণ বিতরণ হতদরিদ্রদের বাড়ি বাড়ি ঈদের খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিলেন প্রবাসীরা করোনা উপসর্গ নিয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু, দুই বাড়ি লকডাউন করলেন এসিল্যান্ড রাজবাড়ীর করোনা যোদ্ধা চিকিৎসকদের N95 মাস্ক দিলেন সাবেক জেলা জজ ‘আসমা আসাদ ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন’-এর উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী ও ঈদ উপহার বিতরণ রাজবাড়ীতে ত্রাণ বিতরণে অনিয়মে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

রাজবাড়ীতে ৪জন শিক্ষা অফিসারের বিদায়-বরণ অনুষ্ঠান : পুঁথিগত বিদ্যার বাইরেও অনেক কিছু শেখার আছে – এ্যাডঃ এম.এ খালেক

News

স্টাফ রিপোর্টার : রাজবাড়ী সদরের উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার নাছিমা আক্তারকে বিদায় এবং নবাগত ৩জন উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার মোঃ আঃ রশীদ, মোঃ মোশারফ হোসেন ও মোঃ আলমগীর হোসেনের বরণ অনুষ্ঠান গতকাল ১লা সেপ্টেম্বর দুপুরে কেনটন চাইনিজ রেস্টুরেন্টে অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজবাড়ী সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডঃ এম.এ খালেক। রাজবাড়ী বাজার পাঠশালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা জেসমিন নেওয়াজীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বিদায়ী উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার(এ.ইউ.ই.ও) নাছিমা আক্তার, নবাগত এ.ইউ.ই.ও মুহাম্মদ আব্দুর রশীদ, মোঃ মোশারফ হোসেন ও মোঃ আলমগীর হোসেন ও টাউন মক্তব সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা জুন কক্স প্রমুখ। অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন নূরজাহান হোসেন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ রঞ্জন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডঃ এম.এ খালেক বলেন, আমি একজন ল’ইয়ার(আইনজীবী)। বারের রেওয়াজ অনুযায়ী, নতুন জেলা জজ এলে আমরা তাকে বরণ করি কিন্তু ভাল পারফরমেন্স না দেখালে ফেয়ারওয়েল দেই না। যিনি বিদায় নিচ্ছেন তিনি খুব ভাল ছিলেন। তার উত্তরোত্তর মঙ্গল ও সমৃদ্ধি কামনা করছি। আগামীতে আমরা তাকে উপজেলা শিক্ষা অফিসার হিসেবে দেখতে চাই। এই রাজবাড়ীতেও চাই। শিশু শিক্ষার্থীদের মাতৃস্নেহে লালন-পালন করার জন্য নারী স্কুল শিক্ষিকাদের প্রতি আহবান জানিয়ে তিনি (এডঃ এম.এ খালেক) আরো বলেন, পুঁথিগত বিদ্যাই সব নয়। এর বাইরেও অনেক কিছু শেখার আছে। যখন উপজেলা চেয়ারম্যান হই নাই তখনও আপনাদের পাশে ছিলাম, এখনও আছি, ভবিষ্যতেও থাকবো। আপনাদের সবার পদোন্নতি হোক-এই কামনা করছি।

বিদায়ী এ.ইউ.ই.ও নাছিমা আক্তার দায়িত্ব পালনকালে সহযোগিতা করায় সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডঃ এম.এ খালেকসহ শিক্ষক-শিক্ষিকাদের ধন্যবাদ জানান এবং তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। এ ছাড়াও তিনি তার নতুন কর্মস্থলে ও বাড়ীতে বেড়াতে যাওয়ার আমন্ত্রণ জানান।

সভাপতির বক্তব্যে রাজবাড়ী বাজার পাঠশালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা জেসমিন নেওয়াজী সদর উপজেলা চেয়ারম্যানের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনি সদর উপজেলার সব স্কুলগুলোর পিতা। পিতা হিসেবে আমাদেরকে সহযোগিতা করুন-আমরা স্বপ্নের বাংলাদেশ, সোনার মানুষ গড়ব। এ ছাড়াও তিনি স্কুলগুলোকে জুট মিল নয়, মানুষ গড়ার কারখানা হিসেবে উল্লেখ করে মানসম্মত শিক্ষার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

আলোচনার পর বিদায়ী এবং নবাগত কর্মকর্তাদের সদর ক্লাস্টার ও রাজবাড়ী টাউন মক্তব সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে উপহার প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে সদর ক্লাস্টারের আওতাধীন বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মন্ডলী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

 

 

আপডেট : মঙ্গলবার সেপ্টেম্বর ২,২০১৪/ ১১:৩৩ এএম/ আশিক

 

 

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর