,

আল্লাহ যতদিন সুযোগ দেবেন ততদিন মানুষের কল্যানে জন্য কাজ করে যাব : আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী

News

নিজস্ব প্র্রতিবেদক : রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য ও সরকারী প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী বলেছেন, প্রয়াত জননেতা কাজী হেদায়েত হোসেনের সন্তান হিসেবে আমি সবসময়ই সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করি। সর্বশক্তি দিয়ে তাদের কল্যাণে কাজ করার চেষ্টা করি। আল্লাহ্ যতদিন হায়াত ও সুযোগ দেবেন ততদিনই মানুষের কল্যানে জন্য কাজ করে যাব।

গতকাল ১৯শে সেপ্টেম্বর বিকেলে ও সন্ধ্যায় রাজবাড়ী সদর উপজেলার শহীদ ওহাবপুর ইউনিয়নের গৌরীপুরে এবং মূলঘর ইউনিয়নের বাঘিয়া চরপাড়ায় পৃথক ২টি পল্লী বিদ্যুতায়ন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

৪র্থ বারের মতো রাজবাড়ী-১ আসনের এমপি নির্বাচিত হওয়া আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী আরো বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ভিশন ২০২১ জননেত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা করেছেন। বাংলাদেশ যে ডিজিটালাইজড হওয়ার প্রমাণ হচ্ছে, এখন বিশ্বের যে কোন স্থান থেকে যে কোন সময় আমাদের যে কোন ইউনিয়নের যাবতীয় তথ্য যে কেউ চাইলেই পাচ্ছে। ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্রগুলোর মাধ্যমে প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের কাছে ডিজিটাল সেবা পৌঁছে দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, উন্নয়নের মূল চাবিকাঠিই হলো বিদ্যুৎ। বিগত বিএনপি-জামাত জোট সরকার বিদ্যুৎ খাতে ২২হাজার কোটি টাকা ব্যয় দেখালেও তাদের সময়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন একটুও বাড়েনি। এ খাতের সব টাকাই লুটপাট হয়েছে। তাদের সময়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন ছিল ৩২শ মেগাবাইটের মতো। অথচ আমরা ক্ষমতায় আসার পর বিদ্যুৎ উৎপাদন ১০হাজার মেগাওয়াট অতিক্রম করেছে। ৪০ লাখ নতুন গ্রাহককে সংযোগ দেয়া হয়েছে। এই নতুন সংযোগগুলো দেয়া না হলে এক মিনিটের জন্যও লোডশেডিং হতো না। তিনি বিদ্যুৎ ব্যবহারে সতর্ক ও সাশ্রয়ী হওয়ার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।

এমপি আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী আরো বলেন, প্রতিক্রিয়াশীল চক্র এখনো সক্রিয় রয়েছে-যারা দেশের প্রগতির চাকাকে উল্টো দিকে ঘুরিয়ে দিতে চায়। অস্থিতিশীলতা সৃষ্টির মাধ্যমে দেশটাকে পাকিস্তান-আফগানিস্তানের মতো ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়। তাদের ব্যাপারে শুধু আওয়ামী লীগ বা মহাজোটের নেতাকর্মী-সমর্থকই নয়, দলমত-ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

বিকেলে অনুষ্ঠিত গৌরীপুরের প্রথম উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজবাড়ী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সহকারী জেনারেল ম্যানেজার বিশুদ্ধানন্দপুর ব্রাক্ষ্মন এবং পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি বোর্ডের সভাপতি হাবিবুর রহমান মোল্লা।

শহীদ ওহাবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি শেখ ফরিদ আহম্মেদের সভাপতিত্বে এবং ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আঃ ছালামের পরিচালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন শহীদ ওহাবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহিন খান। অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক হেদায়েত আলী সোহ্রাব, শহীদ ওহাবপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক মোঃ শহিদুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আজাদ খান, ৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি রতন দাস, ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব হোসেন লিটন, ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক মোঃ রইচ উদ্দিন মোল্লা ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সানাউল্লাহ মিয়া প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে শহীদ ওহাবপুর ইউনিয়নবাসীর পক্ষে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহিন খান সংসদ সদস্য আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলীর কাছে এলাকার রাস্তাঘাট, ব্রীজ-কালভার্ট, মসজিদ-মন্দির ও স্কুল-মাদ্রাসার উন্নয়ন এবং অবশিষ্ট এলাকাগুলোতে যত দ্রুত সম্ভব বিদ্যুতায়নের ব্যবস্থা করার দাবী জানান। বিপুল সংখ্যক মহিলাসহ সহস্রাধিক মানুষ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

সন্ধ্যায় বাঘিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন মাঠে দ্বিতীয় পল্লী বিদ্যুতায়ন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজবাড়ী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার মোঃ আলতাফ হোসেন এবং পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি বোর্ডের সভাপতি হাবিবুর রহমান মোল্লা। মূলঘর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি শাহনেওয়াজ শানুর পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সম্পাদক হেদায়েত আলী সোহ্রাব, মূলঘর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল হক, মূলঘর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মোঃ আঃ ছালাম ও সদর উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি মানিক বিশ্বাস প্রমুখ।

এ অনুষ্ঠানে মূলঘর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ অহিদুজ্জামান ওহিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে রাজবাড়ী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি বোর্ডের সভাপতি হাবিবুর রহমান মোল্লা বক্তব্য রাখেন।

 

 

আপডেট : শনিবার সেপ্টেম্বর ২০,২০১৪/ ১০:৫৯ এএম/ আশিক

 

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর