‘সরকার বেপরোয়া ও নৃশংস হয়ে উঠেছে’

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১২:১৪ অপরাহ্ণ ,২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৪ | আপডেট: ১২:১৪ অপরাহ্ণ ,২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৪
পিকচার

ঢাকা : বিরোধী দলকে নিশ্চিহ্ন করে নিজেদের একচ্ছত্র আধিপত্য বজায় রাখতে সরকার বেশি বেপরোয়া ও নৃশংস হয়ে উঠেছে বলে দাবি করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শনিবার বিকেলে ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রশিদ হাবিবসহ সংগঠনের বেশ কয়েকজন কর্মীকে গ্রেফতারের নিন্দা জানিয়ে এক বিবৃতিতে তিনি এ দাবি করেন।

ফখরুল বলেন, “অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলকারী বর্তমান আওয়ামী ফ্যাসিস্ট সরকার অত্যন্ত সুপরিকল্পিতভাবে দেশের সব বিরোধী দলকে নিশ্চিহ্ন করে নিজেদের একচ্ছত্র আধিপত্য বজায় রাখতে এখন আরো বেপরোয়া ও নৃশংস হয়ে উঠেছে।”

বিবৃতিতে অভিযোগ করা হয়, ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রশীদ হাবিবকে বিমানবন্দর থেকে এবং ছাত্রদল নেতা মনির হোসেন, ফয়সাল, কামাল ও মিলনকে ফকিরাপুল মোড়ে মিছিল থেকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি বলেন, “এসব নেতার গ্রেফতার সরকারের ক্ষমতাসীনদের ক্রমাগত প্রতিহিংসাপরায়ণ রাজনীতির বহিঃপ্রকাশ।”

তিনি অভিযোগ করেন, দেশকে বিরোধী দলশূন্য করতে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী দিয়ে দেশব্যাপী বিরোধী দলীয় নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের এবং গ্রেফতারের মাধ্যমে দেশে সন্ত্রাসী রাজত্ব কায়েমের চেষ্টা চলছে।”

ফখরুল আরো বলেন, “দেশের সব প্রচলিত আইন এবং মানুষের গণতান্ত্রিক ও মৌলিক অধিকার বর্তমান আওয়ামী অবৈধ সরকারের স্বেচ্ছাচারী শাসনে এখন বিলুপ্তপ্রায়। একথা নিশ্চিত করে বলা যায় যে, দেশের বিরোধী দলগুলোর অস্তিত্ব সমূলে বিনাশ করাই বর্তমান অবৈধ সরকারের প্রধান ও মূল লক্ষ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর এ কারণেই বিরোধী দলীয় নেতা-কর্মীদেরকে নিরবচ্ছিন্নভাবে গ্রেফতার করা হচ্ছে।”

তিনি আরো বলেন, “আইনের শাসন নিশ্চিহ্ন করে দিয়ে এই অবৈধ সরকার দেশে একদলীয় শাসন চালু করেছে। ঘরে বাইরে কোথাও কোনো স্বস্তি নেই, শান্তি নেই। মানুষের মধ্যে নিরাপত্তাহীনতা প্রকট আকার ধারণ করেছে। ক্ষমতাসীনদের নির্যাতন নিপীড়ন ও চরম দুঃশাসনে মানুষের মধ্যে এক চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। জনগণ এখন আওয়ামী ভয়াবহ কুশাসন থেকে পরিত্রান পেতে চায়।”

তিনি অবিলম্বে আটক নেতাকর্মীদের মুক্তি দাবি করে দেশকে বিরোধী দল শূন্য করার অশুভ ও ব্যর্থ প্রচেষ্টা থেকে সরকারকে বিরত থাকার আহ্বান জানান।

 

আপডেট : শনিবার সেপ্টেম্বর ২৭,২০১৪/ ০৬:০৭ পিএম/ আশিক

 


এই নিউজটি 1109 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments

More News from রাজনীতি