মানুষ নির্বিঘ্নে গন্তব্যে পৌঁছে প্রিয়জনের সঙ্গে পূজা ও ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে পারবে : দৌলতদিয়া ঘাট কর্তৃপক্ষ

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ৩:৩৬ পূর্বাহ্ণ ,২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৪ | আপডেট: ৩:৫২ পূর্বাহ্ণ ,২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৪
পিকচার

গোয়ালন্দ প্র্রতিনিধি : ঈদুল আযহা ও দুর্গোৎসবকে সামনে রেখে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুট প্রস্তুত হচ্ছে। যানবাহনের অতিরিক্ত চাপ সামাল দিতে পর্যাপ্ত ফেরির ব্যবস্থা, ঘাট এলাকায় যানজট নিরসনে বিশেষ ট্রাফিক ব্যবস্থাসহ যাত্রীদের নিরাপত্তায় প্রস্তুতি নিয়েছে প্রশাসন। ঘাট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এবার মানুষ নির্বিঘ্নে তাদের গন্তব্যে পৌঁছে প্রিয়জনের সঙ্গে পূজা ও ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে পারবে। ঘাটে এসে কাউকে ভোগান্তিতে পড়তে হবে না।

জানা যায়, এবার বড় দুই উৎসব পূজা ও ঈদ পাশাপাশি হওয়ায় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে যাত্রীর চাপ অনেক বাড়বে। তাই ঘরমুখো মানুষের যাত্রা নির্বিঘ্ন করতে গতকাল রবিবার দৌলতদিয়া ঘাট রেস্টহাউসে এক প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে স্থানীয় প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি, বিআইডাব্লিউটিসি, বিআইডাব্লিউটিএ, পুলিশ কর্মকর্তাসহ পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। সভা শেষে বিআইডাব্লিউটিসির দৌলতদিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক মো. শফিকুল ইসলাম জানান, নদী পার হতে আসা অতিরিক্ত গাড়ির চাপ সামাল দিতে ৯টি রো রো ফেরিসহ ছোট-বড় মোট ১৭টি ফেরি প্রস্তুত আছে। যাত্রীদের দুর্ভোগ লাঘবে ঈদের তিন দিন আগে থেকে পরের তিন দিন পর্যন্ত এই নৌপথে কোরবানির পশুবাহী ট্রাকসহ অত্যাবশ্যকীয় পণ্যবাহী ট্রাক ছাড়া অন্য সব ট্রাক পারাপার বন্ধ থাকবে। তিনি আরো জানান, চলাচলকারী কোনো ফেরি বিকল হলে সঙ্গে সঙ্গে তা মেরামতের জন্য পাটুরিয়ার ভাসমান কারখানা মধুমতীকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এ জন্য ওই মেরামত কারখানার সব কর্মকর্তা-কর্মচারীর ছুটি ইতিমধ্যে বাতিল করা হয়েছে।

বিআইডাব্লিউটিএর ড্রেজিং বিভাগ সূত্র জানায়, চ্যানেলে প্রয়োজনীয় খননকাজ করায় বর্তমান দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে কোনো নাব্যতা সংকট নেই। এ কারণে আসন্ন পূজা ও ঈদে পূর্ণ লোড নিয়ে ফেরিগুলো চলাচল করতে পারবে। বিআইডাব্লিউটিএর ট্রাফিক পরিদর্শক দীনেশ কুমার সাহা জানান, অতিরিক্ত যাত্রী পারাপারের জন্য এ নৌপথে ৩৭টি লঞ্চ প্রস্তুত রাখা হয়েছে। লঞ্চগুলো সার্বক্ষণিক সচল থেকে যাত্রী পারাপার করবে।
গোয়ালন্দ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পঙ্কজ ঘোষ বলেন, প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রস্তুতি গ্রহণ করায় এবার যাত্রীরা নির্বিঘ্নে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারবে। ঘাটে এসে কাউকে ভোগান্তিতে পড়তে হবে না। তিনি আরো জানান, লঞ্চ ও বাসে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন রোধে উভয় ঘাট এলাকায় একাধিক ভ্রাম্যমাণ আদালত সার্বক্ষণিক কাজ করবেন।

এদিকে রাজবাড়ীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তোফায়েল আহমেদ জানান, গতবারের মতো এবারও ঈদের আগে ঘরমুখো ও ঈদের পরে কর্মমুখো মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দৌলতদিয়া ও পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন থাকবে। লঞ্চঘাট, ফেরিঘাট, বাসটার্মিনালসহ মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশের পাশাপাশি গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি), আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন ও র্যা ব থাকবে। তারা সার্বক্ষণিক এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নজরদারি করবে। এ ছাড়া নৌপথের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দিন ও রাতের বিভিন্ন সময়ে স্পিডবোট ও ট্রলার নিয়ে নদীতে টহল দেবে নৌ-পুলিশ।

 

 

আপডেট : সোমবার সেপ্টেম্বর ২৯,২০১৪/ ০৯:৩৫ এএম/ আশিক

 

 


এই নিউজটি 1166 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments