কুষ্টিয়ায় আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে ৫ দিনব্যাপী লালন স্মরণোৎসব

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ৭:৪৫ পূর্বাহ্ণ ,১৫ অক্টোবর, ২০১৪ | আপডেট: ৭:৪৫ পূর্বাহ্ণ ,১৫ অক্টোবর, ২০১৪
পিকচার

রাজবাড়ী নিউজ২৪.কম : কুষ্টিয়ায় ছেঁউড়িয়ায় শুরু হচ্ছে ৫ দিনব্যাপী লালন স্মরণোৎসব। লালন সাঁইয়ের ১২৪তম তিরোধান দিবস উপলক্ষে আগামীকাল বৃহস্পতিবার ১ লা কার্তিক এ উৎসবের উদ্বোধন হবে।

কুষ্টিয়া শহরতলীর ছেঁউড়িয়া কালীগঙ্গা নদীর তীরে লালন সাঁইয়ের আখড়াবাড়ি। উৎসবকে কেন্দ্র করে লালন ভক্ত, সাধু, বাউল আর দর্শনার্থীদের পদভারে এখন মুখরিত আখড়াবাড়ি। লালনের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সারাদেশ থেকে ছুটে আসছে লালন ভক্তরা। লালন একাডেমী ও বিশাল মাঠে জুড়ে বাউল সাধুদের মেলা বসছে।

১ কার্তিক অসাম্প্রদায়িক চেতনার এই মহাপুরুষের ১২৪ তম তিরোধান দিবস। ১২৯৭ বঙ্গাব্দ সালের পহেলা কার্তিক চাদরমুড়ি দিয়ে গান শুনতে শুনতে নশ্বর এ পৃথিবী থেকে বিদায় নেন সাধু-ভক্তদের সাঁইজি। দেহত্যাগের সময় তিনি তার ভক্তদের বলে যান ‘আমি চললাম’। সাধক পুরুষ লালন চলে গেলেন। তার রেখে যাওয়া মত ও পথের বিশ্বাসী ভক্তরা আজো এখানে ভিড় জমায়। তারা একতারায় সাঁইজির সুর তুলে পরম ঈশ্বরকে সন্ধান করে। প্রতি বছর সাঁইজির তিরোধান দিবসে কুষ্টিয়ার কালীগঙ্গা নদীর তীরের লালন আখড়ার ছুটে আসেন লালনের ভক্ত-অনুরাগীরা। তিরোধান উৎসবকে সামনে রেখে বাউলরা এখানে আসে। শুধুমাত্র প্রাণের টানে হাজার হাজার লালন ভক্ত ছুটে আসছে লালনের আখড়ায়। একতারা বাজিয়ে গলাছেড়ে গাইছেন লালনের গান। যার বাণী ও সুরে কেবলই ধ্বনিত হয়েছে অসাম্প্রদায়িকতার কথা।

ফকির লালন সাঁইয়ের ১২৪ তম তিরোধান দিবস