উত্তর দৌলতদিয়া ও বসন্তপুর থেকে গাঁজা-হেরোইন উদ্ধার : গ্রেফতার ৩

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ৭:৫৩ পূর্বাহ্ণ ,১৮ অক্টোবর, ২০১৪ | আপডেট: ৭:৫৩ পূর্বাহ্ণ ,১৮ অক্টোবর, ২০১৪
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার : মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর রাজবাড়ী অফিসের সার্কেল পরিদর্শক মোঃ আমিরুজ্জামানের নেতৃত্বে মাদক বিরোধী চিরুনী অভিযানে গত ১৬ অক্টোবর গোয়ালন্দ উপজেলার উত্তর দৌলতদিয়ার বিভিন্ন স্থান থেকে ৯ গ্রাম হেরোইনসহ ৩মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

জানা যায়, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর রাজবাড়ী অফিসের সার্কেল পরিদর্শক মোঃ আমিরুজ্জামানের নেতৃত্বে বিভাগীয় স্টাফ এসআই মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, এএসআই মলিন চন্দ্র ঢালী ও পুলিশ লাইন্সের ৪জন কনষ্টেবল নিয়ে রেইডিং পার্টি গঠন করে গত ১৬ অক্টোবর দুপুর ১টার দিকে গোয়ালন্দ উপজেলা উত্তর দৌলতদিয়া বাজার মন্দিরের পিছন থেকে মাদকদ্রব্য বেচাকেনার সময় ২গ্রাম হেরোইনসহ রাজীব মিয়া (৩৫) নামের এক মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত রাজীব মিয়া ফরিদপুর জেলা সদরের কমলাপুর গ্রামের মিজান মিয়ার ছেলে।

অপর অভিযানে দুপুর আড়াইটার দিকে দৌলতদিয়া লঞ্চঘাট এলাকায় মেসার্স ফারুক ষ্টোরের সামনে থেকে মাদকদ্রব্য বিক্রিকালে সঞ্জয় কুমার রায় (২৮) নামের এক বিক্রেতাকে হাতে নাতে আটক করা হয়। এরপর তার দেহ তল্লাশী করে শার্টের বাম পকেটের মধ্যে একটি ম্যাচ বাক্সের মধ্যে থেকে ৪গ্রাম হেরোইন উদ্ধার ও তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত সঞ্জয় কুমার রায় ফরিদপুর জেলা সদরের চর ভবানীপুর গ্রামের রবীন্দ্রনাথ রায়ের ছেলে।

এরপর মাদকদ্রব্যের রেইডিং পার্টি একই দিন বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে অভিযান চালায় উত্তর দৌলতদিয়া বাস টার্মিনালে। সেখানে শমসের হোটেলের পিছনে ফজল মোল্লা বোডিং এর মধ্যে মাদক বিক্রিকালে ফারুক মিয়া (৩০) নামক এক মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার এবং তার কাছ থেকে ২ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃত ফারুক মিয়া মানিকগঞ্জ জেলা সদরের পশ্চিম বারোটিয়া গ্রামের হানিফ মিয়ার ছেলে।
এছাড়াও গত ১৫ অক্টোবর বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে রাজবাড়ী সদর উপজেলার বসন্তপুর ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামের মাদক বিক্রেতা রনবীর বিশ্বাসের (৪৫) বসত বাড়ী থেকে ৬০ পুরিয়া গাঁজা উদ্ধার করা হয়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে রনবীর বিশ্বাস পালিয়ে যায়। মাদক বিক্রেতা রনবীর বিশ্বাস (৪৫)কে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত রনবীর একই গ্রামের মৃত পঞ্চা নন্দ বিশ্বাসের ছেলে। উদ্ধারকৃত হেরোইন ও গাঁজার মূল্য ১লক্ষ ১০ হাজার টাকা।

এ বিষয়ে মাদক আইনে গোয়ালন্দ থানায় ৩টি ও রাজবাড়ী সদর থানায় পৃথক ১টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর রাজবাড়ী অফিসের সার্কেল পরিদর্শক মোঃ আমিরুজ্জামান জানান, রাজবাড়ী জেলার বিভিন্ন মাদক স্পটে মাদক বিরোধী চিরুনী অভিযান অব্যাহত থাকবে।

 

 

আপডেট : শনিবার অক্টোবর ১৮,২০১৪/ ‌০১:৫১ পিএম/ আশিক

 

 

 

 

 

 


এই নিউজটি 942 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments