,

সর্বশেষ :
রাজবাড়ীতে যাত্রা শুরু করলো ‘সবুজ বাংলা কুরিয়ার সার্ভিস’ রাজবাড়ী পৌর নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী তিতু বিজয়ী গোয়ালন্দ বহুমুখী সমবায় সমিতি’র ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য হলেন দেওয়ান ফিরোজ রাজবাড়ীতে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে ভোট চাইলেন কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় নেতা হক রাজবাড়ীর সন্তান সৌরভ হাসানের গল্পগ্রন্থ-‌’হলদে পাখির গান’। গোয়ালন্দ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে লাঙ্গল নিয়ে লড়ছেন সাংবাদিক হেলাল রপ্তানি খাতে একধাপ এগিয়ে যাবার লক্ষে ‘ডিভিশন প্রাইম গ্রীন’ এর যাত্রা শুরু রাজবাড়ী পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী পলাশের মনোনয়ন পত্র দাখিল, সাংবাদিক সম্মেলন ‘হারিয়ে গেছে বাবা নামক বটগাছ’ রাজবাড়ীর লাভলু হত্যা মামলার তদন্তভার পিবিআই’কে দেয়ার আবেদন পরিবারের

গোয়ালন্দ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে লাঙ্গল নিয়ে লড়ছেন সাংবাদিক হেলাল

News

রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ পৌরসভার আসন্ন নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী হিসেবে মেয়র প্রার্থী হয়েছেন তরুণ সমাজসেবক ও দৈনিক যুগান্তরের জেলা প্রতিনিধি হেলাল মাহমুদ। দোয়া চেয়ে লাঙ্গল নিয়ে লড়ে চলেছেন তিনি। 

সাংবাদিক হেলাল মাহমুদ রাজবাড়ী জেলা জাতীয় পার্টির অন্যতম যুগ্ম-সাংগঠনিক সম্পাদক। এর আগে তিনি জেলা জাতীয় পার্টির কার্যনির্বাহী সদস্যের পাশাপাশি দীর্ঘদিন সহযোগী সংগঠন জাতীয় ছাত্র সমাজ ও যুব সংহতির রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। গোয়ালন্দ পৌরসভার বিগত নির্বাচনেও তিনি জাতীয় পার্টির মেয়র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। জাতীয় পার্টির রাজনীতির পাশাপাশি তিনি একজন সাংস্কৃতিক কর্মী। আবৃত্তি, অভিনয়, নাটক, গানসহ সংস্কৃতির নানা অঙ্গনে তার দীর্ঘ দিনের পদচারণা রয়েছে। গোয়ালন্দ-রাজবাড়ীর বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথেও তিনি ওতপ্রোতভাবে জড়িত। এর পাশাপাশি তিনি দীর্ঘ দিন শিক্ষকতাও করেছেন।

গোয়ালন্দ পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের কাউলি কেউটিল মাস্টারপাড়া গ্রামের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মরহুম সহিদুল ইসলাম ও হাসিনা বেগম দম্পতির একমাত্র সন্তান হেলাল মাহমুদ ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত। স্ত্রী সেলিনা শিরিন একজন গৃহিনী। একসময় তিনিও শিক্ষকতা করতেন। তাদের একমাত্র সন্তান আরদ্বী বিনতে মাহমুদ ইকরা ১০ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী। 

মেয়র পদে নির্বাচনে অংশগ্রহণের ব্যাপারে সাংবাদিক হেলাল মাহমুদ বলেন, আমি ছাত্র জীবন থেকেই জাতীয় পার্টির রাজনীতির সাথে জড়িত। পার্টির প্রতিষ্ঠাতা, সাবেক রাষ্ট্রপতি ও সেনাপ্রধান পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে জাতীয় পার্টির রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হই। জাতীয় ছাত্র সমাজ ও যুব সংহতির ধারাবাহিকতায় বর্তমানে মূল দলের জেলা কমিটিতে যুগ্ম-সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি। দলের প্রতীক লাঙ্গলকে তুলে ধরার জন্য কেন্দ্রীয় ও জেলা নেতাদের পরামর্শক্রমে মেয়র প্রার্থী হয়েছি। আমার অনেক টাকা-পয়সা না থাকলেও সাধারণ মানুষের প্রতি আমার অগাধ ভালোবাসা আছে। আমি আমার সামর্থ্য অনুযায়ী সবসময়ই তাদের পাশে দাঁড়াই-কাজ করি। জনপ্রতিনিধি হতে পারলে আরও বড় পরিসরে সেবা করার সুযোগ পাবো, এ চিন্তা-ভাবনা থেকেই মেয়র প্রার্থী হয়েছি। নির্বাচিত হলে গোয়ালন্দ পৌরসভাকে ঢেলে সাজাবো। দলমত নির্বিশেষে সবার সহাযোগিতায় ও পরামর্শক্রমে সকল কার্যক্রম পরিচালনা করবো। প্রয়াত এরশাদের আদর্শকে সমুন্নত রেখে তার স্বপ্ন বাস্তবায়নে সচেষ্ট হবো। এ জন্য আমি সবার দোয়া ও সমর্থন চাই।  

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর