,

একবার সুযোগ দিন, মিজানপুর ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলবো : টুকু মিজি

News

রাজবাড়ী সদর উপজেলার সোনাকান্দরে এলাকাবাসীর সাথে নির্বাচনী মতবিনিময় সভা করেছেন আসন্ন মিজানপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আমিন উদ্দিন আহম্মেদ টুকু মিজি।

বুধবার (৩ মার্চ) বিকেলে সোনাকান্দর ইসলামিয়া হাফিজিয়া মাদরাসার মাঠে এ নির্বাচনী মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজবাড়ী পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র মোঃ আলমগীর শেখ তিতু। 

মিজানপুর পূর্বঞ্চল আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি কিয়াম উদ্দিন গাজীর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় মোঃ আমিন উদ্দিন আহম্মেদ টুকু মিজি, মিজানপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মোঃ আজম মন্ডল, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোঃ ফিরোজ বিশ্বাস, সাংগঠনিক সম্পাদক সাফায়েত হোসেন সাচ্চু, সদর উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নাঈমা বেগম, সোনাকান্দর ইসলামিয়া হাফিজিয়া মাদরাসার প্রধান শিক্ষক হাফেজ মুঞ্জুরুল আলম, সহকারী শিক্ষক মোঃ লুৎফর রহমান ও মিজানপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৯নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার মোঃ খলিলুর রহমান বক্তব্য রাখেন।

মতবিনিময় সভায় রাজবাড়ী পৌরসভার নব নির্বাচিত মেয়র মোঃ আলমগীর শেখ তিতু বলেন, সকল ক্ষমতা আল্লাহ’র। আল্লাহ’র ইচ্ছা ছিল বলেই আমি পৌর মেয়র নির্বাচিত হয়েছি। রাজবাড়ী পৌরসভাকে আমি যে চোখে দেখি, তেমনি মিজানপুরকেও আমি একই চোখে দেখি। আপনারা টুকু মিজি ভাইকে একবার সুযোগ দেন। তিনি অনেক ভাল মানুষ। তিনি নির্বাচিত হলে এলাকায় অনেক উন্নয়ন হবে। তিনি নির্বাচিত হলে আমরা দু’জন মিলে সোনাকান্দর ঘাটকে বড় আকারে ঘাট হিসেবে গড়ে তুলবো। যেখানে ১হাজার মানুষের কর্মসংস্থান তৈরি হবে।

মিজানপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী মোঃ আমিন উদ্দিন আহম্মেদ টুকু মিজি বলেন, আমি নির্বাচিত হলে ইউনিয়ন পরিষদের একটি টাকাও আমার পকেটে যাবে না। বরং আমার নিজের আয়ের টাকা ইউনিয়ন পরিষদে যাবে। আপনারা বর্তমান ও বিগত চেয়ারম্যানদের দেখেছেন তারা  আপনার এলাকায় কি করেছেন তা আপনারাই ভাল বলতে পারবেন। আপনারা আমাকে একবার সুযোগ দিন। আমি যদি আপনাদের এলাকায় উন্নয়ন করতে না পারি তাহলে আর কোন দিন আপনাদের সামনে আসবো না। আমি কখনো দলবাজী করেনি। আওয়ামীলীগ ও বিএনপিকে কখনো আলাদা করে দেখেনি। আমি নির্বাচিত হলে সর্বদলীয় কমিটির মাধ্যমে ইউনিয়ন পরিষদ পরিচালিত হবে। আমি নির্বাচিত হলে মিজানপুর ইউনিয়নকে একটি মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলবো। সকল নাগরিকের অধিকার সু-প্রতিষ্ঠিত করবো। আমার দ্বারা কারো কোন ক্ষতি হবে না। ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করবো। আপনারা যারা নদী ভাঙা মানুষ আছেন আপনারা আমার কাছে আসবেন আমি আপনাদের সব সময় সহযোগিতা করবো। আমি যদি মারাও যাই তাহলেও আমার উত্তরসূরী থাকবে তারা আপনাদের সহযোগিতা করবে।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক রাজু, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক শেখ ফরিদ, সূর্য্য নগর দ্বি-মূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আব্দুল মোতালেব, মিজানপুর ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পারুল বেগম, সাধারণ সম্পাদক লুৎফুন নাহার মিতা, ইউনিয়ন যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদিকা রুমানা খাতুন ও মিজানপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোঃ রুবেল মন্ডলসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর