,

সর্বশেষ :
বাংলাদেশ কিন্ডার গার্টেন অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে করোনায় প্রাণ হারানো শিক্ষকের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা এডঃ এম.এ খালেকের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল রাজবাড়ী সদর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান এডঃ এম এ খালেকের ১ম মৃত্যু বার্ষিকী আজ রাজবাড়ীতে কাজ শেষ না হতেই ৩৭৬ কোটি টাকার বাঁধে ভাঙন ফেসবুক গ্রুপ ‘বসন্তপুর লাইভ’-এর পরিচিতি ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত রাজবাড়ীর বসন্তপুর ইউনিয়নে ভিজিএফ-এর চাল বিতরণ রাজবাড়ীর বসন্তপুর ও আলীপুরে প্রধানমন্ত্রীর উপহার বিতরণ রাজবাড়ীর বসন্তপুরে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক রাজবাড়ী জেলা বারের আইনজীবী সুদীপ্ত গুহের স্থগিত হওয়া ‌’সদস্যপদ পুনর্বহাল’ রাজবাড়ী সদর উপজেলা ছাত্রলীগের উপ-প্রচার সম্পাদক হলেন রিয়ান

সারাদেশে ৬ শতাধিক মানুষের আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টি করবে রাজবাড়ী ই-কমার্স

News

রাজবাড়ী : ‘কাজ করবো দেশের জন্যে, উদ্যোগ নিবো দেশীয় পণ্যে’-এই স্লোগানকে সামনে রেখে দেশের ৬৪ জেলায় ছয় শতাধিক মানুষের আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টির উদ্যোগ নিয়েছে রাজবাড়ী ই-কমার্স গ্রুপ (রাইক)। সফল উদ্যোক্তা তৈরির লক্ষ্যে সকল জেলাগুলোতে স্থাপন করা হবে ছয় শতাধিক মিনি শপ।

রাজবাড়ী ই-কমার্স মিনি শপ প্রকল্পের প্রধান নির্বাহী এবং ঢাকা জেলার সমন্বয়ক কামিছুল ইসলাম বলেন,  রাজবাড়ী ই-কমার্স গ্রুপ সারাদেশে মোট ছয় শতাধিক মিনি শপ স্থাপন করে ছয় শতাধিক মানুষের আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টির উদ্যোগ নিয়েছে। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি ছয় শতাধিক সদস্যকে রাজবাড়ী ই-কমার্স গ্রুপের জেলা এবং উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে যুক্ত করার। এরই মধ্যে রাজবাড়ী, ঢাকা, পাবনা, মাগুরা, ঝিনাইদহ, কুষ্টিয়া, ফরিদপুর, রাজশাহী, পাবনা, নাটোর, কিশোরগঞ্জ, নোয়াখালী, বগুড়াসহ বেশ কয়েকটি জেলার উদ্যোক্তাগণ আমাদের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন।

কামিছুল ইসলাম বলেন, আমরা সারাদেশে থানা ও উপজেলা এবং জেলা সদর ভিত্তিক মিনি শপ স্থাপন করে একে একে প্রতিটি সদস্যকে শপ বুঝিয়ে দিবো। একজন একটা শপের মালিক হলে তিনি গ্রুপের নিবন্ধনকৃত সদস্যের পণ্য নিয়ে ব্যবসা করে লাভবান হতে পারবেন। কোন উদ্যোক্তার নিজস্ব পণ্য যদি ছয় শতাধিক শপে প্রদর্শিত হয় তাহলে প্রতিদিনই কিছু না কিছু অফলাইনে সেল হবেই এবং ভোক্তাগণ উদ্যোক্তার পণ্য দেখে শুনে যাচাই করে ক্রয়ের সুযোগ পাবেন। এতে করে উদ্যোক্তা পণ্যের মান এবং দাম ধরে রাখতে পারলে দেশ-বিদেশে খুব শীঘ্রই তার পণ্যের পরিচিতি ছড়িয়ে যাবে দ্রুত গতিতে।

তিনি বলেন, কোন উদ্যোক্তা অনলাইনে বিজনেস করলে এটা শুধু তার নিজের। কিন্তু অফলাইনে বিজনেস শুধু রাজবাড়ী-ই কমার্সের। কাউকে একা পরিপূর্ণ উদ্যোক্তা হতে যদি ১০ বছর সময় লাগে; তাহলে রাজবাড়ী-ই কমার্সের এই প্রকল্পের মাধ্যমে তিনি মাত্র ৫ বছরের মধ্যেই একজন পরিপূর্ণ উদ্যোক্তা হয়ে উঠবেন ইনশাআল্লাহ।এই প্রকল্পে যুক্ত হলে এর শাখার মালিক হতে পারবেন এবং এখানে সদস্য হওয়া মানে রাজবাড়ী-ই কমার্সের সকল বিজনেসের সাথে যুক্ত হওয়া। রাজবাড়ী-ই কমার্সের সঙ্গে যুক্ত হতে হলে উদ্যোক্তাকে প্রতি সাপ্তাহে ১২৫ টাকা করে অথবা মাসিক ৫০০ টাকা করে জমা করতে হবে। আমরা যদি জেলা এবং উপজেলা পর্যায়ে সর্বমোট ৬০০ জন সদস্যদের মাধ্যমে জমা করি তাহলে প্রতি মাসে জমা হয় তিন লাখ টাকা। যা দিয়ে আমরা ২-৩ মাস পর পর ১ টি করে শাখা বা শপ চালু করতে পারব ইনশাআল্লাহ । এটিকে ব্যবসায়ীক ভাষায় চেইন শপও বলা হয়।

কামিছুল ইসলাম বলেন, রাজবাড়ী-ই কমার্সের সদস্য হতে হলে উদ্যোক্তাকে নূন্যতম উচ্চ-মাধ্যমিক পাশ হতে হবে, ফেসবুক এবং সকল সোস্যাল মিডিয়া ও ইন্টারনেট সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকতে হবে, রেজিস্ট্রেশন ফি ৩০০ টাকা (অফেরত যোগ্য) জমা দিতে হবে, ২ মাসের সঞ্চয় জমা দিতে হবে, প্রতি মাসে ৫০০ টাকা সঞ্চয় বা জমা করার মতো সামর্থ্য থাকতে হবে, প্রতি মাসে ৩০ তারিখে ভিডিও কনফারেন্স মিটিং যুক্ত হতে হবে, সদস্যকে অবশ্যই কোন আইন-ই ঝামেলায় অপরাধ মূলক বা কোনো অসামাজিক কাজের সাথে যুক্ত থাকা যাবে না, সমিতির কাজের প্রয়োজনে বাংলাদেশের যে কোন প্রান্তে যেতে হতে পারে বা যেতে পারবেন এমন মনোবল থাকতে হবে (নারী সদস্যদের জন্য বাধ্যতামূলক নয়) এবং প্রতিদিন ১ ঘন্টা সময় সংগঠনের জন্য ব্যয় করতে হবে।

রাজবাড়ী ই কমার্সের একজন সদস্য যুক্ত হওয়া মানে একেকজন এক একটি মিনি শপের মালিক হতে পারবেন এবং সংগঠন থেকে অন্য কোনো প্রকল্প চালু করলেও তার মালিকানা পাবেন। অন্য কোনো বিজনেস চালু করলে বিজনেস এর অংশীদার হবেন। এছাড়া উদ্যোক্তার মিনি শপে প্রদর্শিত অন্যান্য পণ্যের লাভের একটা নির্দিষ্ট অংশ তিনি পাবেন।

রাজবাড়ী-ই কমার্সের সঙ্গে যুক্ত হতে চাইলে হটলাইন নম্বর ০১৭৬৩-৭৭১৪৭৬ এ যোগাযোগ করার অনুরোধ করেন কামিছুল ইসলাম।

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর