,

রাজবাড়ীর ৩ পৌরসভায় ৭ দিনের কঠোর বিধিনিষেধ

News

রাজবাড়ী : রাজবাড়ীতে উদ্বেগজনক হারে করোনা সংক্রমণের হার বেড়ে যাওয়ায় জেলার তিনটি পৌরসভায় সাত দিনের কঠোর বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে।

রোববার (২০ জুন) রাতে এ বিষয়ে একটি গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছেন জেলা প্রশাসক ও জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি দিলসাদ বেগম। এর আগে সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভায় কঠোর বিধিনিষেধ জারির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সোমবার (২১ জুন) রাত ১২টা থেকে রাজবাড়ী সদর, পাংশা ও গোয়ালন্দ পৌরসভায় কঠোর বিধিনিষেধ কার্যকর হবে।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, কয়েক দিন ধরে রাজবাড়ীতে করোনার সংক্রমণের হার বেড়ে যাচ্ছিল। এ পরিস্থিতিতে রোববার বিকেলে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক ও জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি দিলসাদ বেগম।

সভায় রাজবাড়ী-১ আসনের (রাজবাড়ী সদর ও গোয়ালন্দ) সংসদ সদস্য কাজী কেরামত আলী, পুলিশ সুপার এম এম শাকিলুজ্জামান, জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব সিভিল সার্জন মোহাম্মদ ইব্রাহিম, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইমদাদুল হক বিশ্বাস, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফাহমি মো. সায়েফ, রাজবাড়ী পৌরসভার মেয়র আলমগীর শেখ তিতু, পাংশা পৌরসভার মেয়র ওয়াজেদ আলী, গোয়ালন্দ পৌরসভার মেয়র নজরুল ইসলাম মণ্ডল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সভা শেষ হয় সন্ধ্যার পরে। সভায় এক সপ্তাহের কঠোর বিধিনিষেধ জারির সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

সিভিল সার্জনের কার্যালয় সূত্রে জানা আছে, করোনার সর্বশেষ প্রতিবেদন এসেছে রোববার। সর্বশেষ র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষা করা হয় রোববার। ৬৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ছয়জন, গোয়ালন্দ উপজেলায় আটজন এবং পাংশা উপজেলায় সাতজন, কালুখালী উপজেলায় দুইজন। শনিবার ৫৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম বলেন, সীমান্তবর্তী জেলার সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি ছড়িয়ে পড়েছে পার্শ্ববর্তী জেলাসমূহে।পার্শ্ববর্তী জেলা কুষ্টিয়া ছাড়াও ফরিদপুর এবং খুলনায় করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্তের উচ্চ হার প্রভাব ফেলতে শুরু করেছে রাজবাড়ীতেও।

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর